সুরকার রুনা লায়লা

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

‘সুরকার হিসেবে আত্মপ্রকাশ করলেন উপমহাদেশের বরেণ্য সঙ্গীতশিল্পী রুনা লায়লা!’ চমকে যাওয়ার মতো হলেও এ খবরের সত্যতা স্বীকার করেছেন রুনা লায়লা। ৫২ বছরের দীর্ঘ সঙ্গীত জীবনে এবারই প্রথম তিনি কোনো গানের সুর করেছেন। ‘গল্প কথার ওই কল্পলোকে জানি, একদিন চলে যাব, কোথায় শুরু আর শেষ হবে কোথায়, সে কথা বলে যাব’_ গাজী মাজহারুল আনোয়ারের লেখা এমনই গীতিকথার সঙ্গে সুর বসিয়েছেন তিনি। সঙ্গে আরেকটি খবর হচ্ছে, নিজে নয়, রুনা লায়লার সুর করা গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন আঁখি আলমগীর। চিত্রনায়ক আলমগীর পরিচালিত ‘একটি সিনেমার গল্প’ চলচ্চিত্রের জন্য গানটি রেকর্ড করা হয়েছে। নির্মাতা জানিয়েছেন ছবিতে ঋতুপর্ণার ঠোঁটে গানটি শোনা যাবে।

আগামী ৯ সেপ্টেম্বর বিএফডিসিতে গানটির চিত্রায়ন করা হবে। সুরকার হিসেবে আত্মপ্রকাশ নিয়ে রুনা লায়লা সমকালকে বলেন, ‘গানের সুর করা কঠিন একটি কাজ। কিন্তু সেই কাজটি এবার করলাম। এ জন্য যথেষ্ট সময় নিতে হয়েছে। আলমগীরের অনুরোধে কাজটি করলেও আমার কিছু শর্ত ছিল। যেহেতু গানটি ক্লাসিক্যাল ধাঁচের, এ জন্য অ্যাকুস্টিক বাদ্যযন্ত্র ব্যবহার করতে হবে। এ শর্ত পূরণেও আলমগীর যথেষ্ট সহযোগিতা করেছেন। গানের সঙ্গীতায়োজনে অ্যাকুস্টিক বাদ্যযন্ত্রই ব্যবহার করা হয়েছে।’ আঁখি আলমগীরের গায়কী নিয়ে তিনি বলেন, ‘লক্ষ্য করেছি, ভিন্নধর্মী ও ভালো গানের প্রতি ওর আলাদা একটা আকর্ষণ আছে। যদিও আমার সুরে গান গাওয়ার আগে আঁখি কিছুটা ভয়ে ছিল, কিন্তু আত্মবিশ্বাসের কোনো কমতি ছিল না। গান রেকর্ডিংয়ের আগে থেকে রেকর্ড করা পর্যন্ত তার চেষ্টার কোনো কমতি ছিল না। অনিন্দ্য সুন্দর গায়কী দিয়ে আঁখি প্রমাণ করেছে, গানটি শ্রোতাদের মনে দাগ কাটবে।’ আঁখি আলমগীর বলেন, ‘আমি সৌভাগ্যবান রুনা লায়লার সুরে গাইতে পেরে।

বিনোদন ডেস্ক

তথ্যসূত্রঃ ইন্টারনেট

ছবিঃ গুগল

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন amar@pranerbangla.com