সিনেমা মুক্তির চক্করে

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলাদেশে সিনেমা বানানো খুব একটা কঠিন কাজ নয়, তবে সিনেমা বিক্রি করার বিষয়টি মারাত্মক কঠিন কাজ। এমন কথায় কিছুদিন আগে নিজের ফেসবুকে স্পষ্টভাবে বলেছিলেন দেশের মেধাবী নির্মাতা অনিমেষ আইচ। মূলত নিজের দ্বিতীয় ও মুক্তি প্রতীক্ষিত ছবি ‘ভয়ংকর সুন্দর’-এর বিপণন নিয়ে যখন কুল কিনারা খুঁজে পাচ্ছিলেন না, তখন ক্ষোভে এমনটি বলেছিলেন এই নির্মাতা। যা বাংলা সিনেমার ভবিষ্যৎ নির্মাতাদের জন্য অশনি সংকেত!

২০১৫ সালে তরুণ নির্মাতা অনিমেষ আইচ নির্মাণ করেন তার প্রথম ছবি ‘জিরো ডিগ্রী’। ছবিটি সেবছর ফেব্রুয়ারিতে মুক্তি পায়। ব্ল্যাক সাইকো থ্রিলারধর্মী নিজের প্রথম সিনেমা দিয়েই বাংলা সিনেমায় ভালো কিছু করার ইঙ্গিত দেন এই নির্মাতা। ছবিটি শেষ করার পরেই নিজের স্বপ্নের ছবি ‘ভয়ংকর সুন্দর’-এ হাত দেন তিনি। প্রথমবার এই ছবির জন্য কলকাতা থেকে নিয়ে আসেন সেখানকার মেধাবী অভিনেতা পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়কে। সেইসঙ্গে পরমের বিপরীতে এই ছবিতে প্রথমবার বড়পর্দায় অভিনয় করেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী ভাবনা।

ছবিটি ২০১৫ সালে শুটিং শুরু করে গেল বছরে শ্যুটিং সম্পন্ন করে ফেললেও নানা জটিলতায় ছবিটি মুক্তি দিতে পারেননি নির্মাতা। তার প্রধান কারণ বুকিং এজেন্ট ও হল মালিকদের গড়িমসি। কাকরাইল কেন্দ্রীক এই প্রতিষ্ঠানগুলো সবসময়ই ভিন্ন ধারার সিনেমাগুলোর পরিপন্থি। কোনো অজ্ঞাত কারণে তারা বরাবরই এফডিসি কেন্দ্রীক সিনেমাগুলো ছাড়া ভিন্নধারাকে এড়িয়ে যায়। স্বাধীন চলচ্চিত্রকার, কিংবা বিজ্ঞাপন, নাটক নির্মান করে এসে যারা সিনেমা করতে চান তাদের সঙ্গে সিনেমার বিপণন, হল বুকিং নিয়ে নানা ধরনের হয়রানিমূলক আচরণ করেন। তার প্রধান উদাহারণ, গেল বছরে বাংলা চলচ্চিত্রের অন্যতম ব্যবসাসফল ছবি ‘আয়নাবাজি’!

যে ছবিটির মুক্তির আগে বুকিং এজেন্ট ও হল মালিকরা মোটেও আগ্রহ দেখায়নি। বরং অমিতাভ বিজ্ঞাপন নির্মাতা বলে অবজ্ঞা করেছে। কিন্তু পরে পাল্টে যায় চিত্র। প্রথম সপ্তাহে মাত্র কুড়িটির মতো প্রেক্ষাগৃহ পেলেও যখন সারা বাংলাদেশের দর্শক ছবিটি দেখতে হুমড়ি খেয়ে পড়লো, তখন অমিতাভের কদর বেড়ে যায়! প্রতি সপ্তাহেই বাড়তে থাকে ‘আয়নাবাজি’র হল সংখ্যা।

এফডিসি ঘরানার বাইরের ছবি বা ফর্মুলা ছবির বাইরে যারা সিনেমা করতে আসেন, তাদেরকেই সিনেমার বিপণন নিয়ে ভুগতে হয় বাংলাদেশে। বুকিং এজেন্ট, হল মালিকদের খামখেয়ালিপনার শিকার হন তরুণ নির্মাতারা।এসব কারণেই ‘ভয়ংকর সুন্দর’-এর মতো ছবিও হল পায় মোটে ২৮টি! অন্যদিকে এফডিসির বলয়ে তৈরি হওয়া ‘মধু হই হই বিষ খাওয়াইলা’র মতো সস্তা ছবিও চলতি সপ্তাহে ৪৫ হল দখল করে!

আসছে ৪ আগস্ট বাংলাদেশের ২৮টি সিনেমা হলে মুক্তি পেতে যাচ্ছে অনিমেষ আইচ নির্মিত ছবি ‘ভয়ংকর সুন্দর’। মতি নন্দীর ছোট গল্প ‘জলের ঘূর্ণি ও বকবক শব্দ’ অবলম্বনে নির্মিত ‘ভয়ংকর সুন্দর’ ছবির মধ্য দিয়ে প্রথমবার বাংলাদেশের সিনেমায় অভিনয় করলেন কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেতা পরমব্রত। যদিও এই ছবির পরে ফাখরুল আরেফিন পরিচালিত ‘ভূবন মাঝি’তে অভিনয় করেও সেটা রিলিজ পেয়েছে গেল মার্চে। ছবিতে তার বিপরীতে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে বড়পর্দায় নাম লেখাতে যাচ্ছেন আশনা হাবিব ভাবনা। এছাড়া ছবিতে আলো অভিনয় করছেন ফারুক আহমেদ, লুৎফর জর্জ ও মাসুক।

বিনোদন ডেস্ক

তথ্যসূত্রঃ ইন্টারনেট

ছবিঃ গুগল

 

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন amar@pranerbangla.com