শুভ জন্মদিন রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহ

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

‘‘এক গ্লাস শূণ্যতা নিয়ে বসে আছি

শূণ্যতার দিকে চোখ, শূণ্যতা চোখের ভেতরেও’’।

প্রয়াত কবি রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহ কি হাতে এক গ্লাস শূণ্যতা নিয়ে তাকিয়ে ছিলেন শূণ্যতার দিকে? প্রতারক, হন্তারক এক সময় তখন তার জাল ছড়িয়ে দিচ্ছে চারপাশে। কিন্তু কবির দৃষ্টি তো সেই অন্ধকারকেও ভেদ করে যায়। রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহ‘র কবিতাও এভাবে বারবার ছিন্ন করেছে তমসাকে। বাংলাদেশের সাহিত্যে কবি নিজেকে পরিচিত করেছেন ভালোবাসা ও দ্রোহের কবি হিসেবে।

আজ তাঁর ৬১তম জন্মদিনে প্রাণের বাংলার পক্ষ থেকে জানাই গভীর ভালোবাসা।

রুদ্র মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ ১৯৫৬ সালের ১৬ অক্টোবর তার পিতার কর্মস্থল বরিশালে জন্মগ্রহণ করেন। তার মূল বাড়ি বাগেরহাট জেলার মংলা উপজেলার মিঠেখালি গ্রামে।

কবি রুদ্র ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলায় অনার্সসহ এমএ পাশ করেন। ছাত্র থাকা অবস্থায় সক্রিয়ভাবে ছাত্র রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। অবৈধ সামরিক শাসক এরশাদ বিরোধী বিরোধী আন্দোলনের অন্যতম সংগঠক ছিলেন রুদ্র। সেই সময়ে বাংলাদেশে চলমান ছাত্র আন্দোলনে তিনি সক্রিয় ভাবে অংশ নেন। তাঁর কবিতায় সেই তুমুল বিদ্রোহী সময়ের ছবি কবিতার পাঠকদের নাড়া দিয়েছিল।

তিনি ছিলেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট ও জাতীয় কবিতা পরিষদ গঠনের অন্যতম উদ্যোক্তা। জাতীয় কবিতা পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা যুগ্ম সম্পাদক। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ, দেশাত্মবোধ, গণআন্দোলন, ধর্মনিরপেক্ষতা, ও অসাম্প্রদায়িকতা তাঁর কবিতায় বলিষ্ঠভাবে উপস্থিত। এছাড়া স্বৈরতন্ত্র ও ধর্মের ধ্বজাধারীদের বিরুদ্ধে তাঁর কণ্ঠ ছিল উচ্চকিত। তারুণ্য ও সংগ্রামের দীপ্ত প্রতীক কবি রুদ্র মুহম্মদ শহীদুল্লাহ তাঁর মাত্র ৩৪ বছরের জীবনে সাতটি কাব্যগ্রন্থ ছাড়াও গল্প, কাব্যনাট্য এবং ভালো আছি ভালো থেকো সহ অর্ধশতাধিক গান রচনা ও সুরারোপ করেছেন।

ব্যক্তিজীবনে বাউন্ডুলে এ কবির জীবনে বন্ধু ছিলো অসংখ্য।

কবির কাব্যগ্রন্থের মধ্যে রয়েছে, উপদ্রুত উপকূল(১৯৭৯), ফিরে চাই স্বর্ণগ্রাম(১৯৮২), মানুষের মানচিত্র(১৯৮৪), ছোবল (১৯৮৬), দিয়েছিলে সকল আকাশ(১৯৮৮), মৌলিক মুখোশ (১৯৯০)।

তিনি ১৯৮০ সালে শহীদ মিুনীর চৌধুরী স্মৃতি পুরস্কার লাভ করেন।

প্রাণের বাংলা ডেস্ক

ছবিঃ গুগল

 

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন amar@pranerbangla.com