লড়াই আজ

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আহসান শামীমঃ আজ বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম টেস্টে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। এই ম্যাচে অনফিল্ড আম্পায়ার হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন নিউজিল্যান্ডের ক্রিস গ্যাফানি ও অস্ট্রেলিয়ার ব্রুস অক্সেনফোর্ড।সীমিত ওভারের ম্যাচে আত্মরক্ষার্থে হাতে ঢাল নিয়ে মাঠে নেমে আলাদাভাবেই নিজেকে পরিচিত করেছেন অক্সেনফোর্ড। টিভি আম্পায়ার হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন শ্রীলঙ্কার কুমার ধর্মসেনা। ম্যাচ রেফারি হিসেবে থাকবেন শ্রীলঙ্কার আরেক আম্পায়ার রঞ্জন মাদুগালে। খেলা পরিচালিত হবে আইসিসির নতুন সব নিয়ম কানুন দিয়ে।যে কারনে ক্রিকেট বিশ্বে টেষ্ট ম্যাচটা ইতিহাসের পাতায় স্থান পেয়ে যাবে।

কাগজে কলমে দক্ষিণ আফ্রিকা নিশ্চিত ফেভারিট। ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিংয়ের তিন বিভাগের সাথে কন্ডিশনের সাহায্য,  সব কিছু মিলিয়ে পচেফট্রমে প্রথম টেস্টে মুশফিকদের বিপক্ষে এগিয়ে থেকে মাঠে নামবে ফাফ ডু প্লেসিসের দল।মোটাদাগে অনেকটা আন্ডারডগ হিসাবেই প্রথম টেষ্টে মাঠে নামবে বাংলাদেশ।

আইসিসির নতুন নিয়মে ঐতিহাসিক এই টেষ্টে বাংলাদেশ দলের ওপেনার সৌম্য সরকারের খেলার সম্ভাবনা খুবই কম। ইন্জুরি সমস্যা কাটিয়ে উঠতে পারেননি তিনি। ম্যাচ শুরুর আগে বুধবার ২০ মিনিটেরও বেশি সময় ধরে বাংলাদেশ দলের টেষ্ট অধিনায়ক , হেড কোচ হাতুড়াসিংহ খুটিয়ে খুটিয়ে পীচ বোঝার চেষ্টা করেছেন। পীচ দেখার পর তিন পেসার আর দুই স্পিনার নিয়ে বাংলাদেশ দল মাঠে নামতে পারে এমনই আভাস দিলেন টিম ম্যানেজমেন্ট। তবে উইকেটের পেছনে কে দাঁড়াবেন সেটা এখনও অজানা।

প্রোটিয়াদের ইঞ্জুরিকে বাংলাদেশের হেড কোচ সুযোগ হিসাবে দেখছেন। প্রথমে শোনা গিয়েছিলো বাংলাদেশের বিপক্ষে আসন্ন দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রথমটাতেই শুধু খেলতে পারবেন না প্রোটিয়া অলরাউন্ডার ভারনন ফিল্যান্ডার।  গত বুধবার জানা গেছে পুরো সিরিজেই তাকে পাচ্ছে না দক্ষিণ আফ্রিকা।ফিল্যান্ডারকে ছাড়া দক্ষিণ আফ্রিকার বোলিং লাইন আপ যে যথেষ্টই দুর্বল হয়ে পড়বে তা বলাই বাহুল্য। সেক্ষেত্রে প্রোটিয়াদের নির্ভর করতে হবে মরনে মরকেল, কাগিসো রাবাদা, ডুয়াইন অলিভার এবং আন্দাইল ফেহলুকায়োর ওপর।

সাকিবকে ছাড়া খেলাটাকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে মানছেন মুশফিক। তিনি বলেন, ‘চ্যালেঞ্জিং তো অবশ্যই। আর চ্যালেঞ্জিং হওয়ারও দরকার। তাহলে ম্যাচ শেষে বোঝা যায় এটা হলে বা ওটা হলে ভাল হতো। আমরা সবাই চেষ্টা করি বেস্ট কম্বিনেশনটা করার। এটা নির্ভর করে কন্ডিশন ও পরিস্থিতির ওপর।’ সাকিব না থাকায় দু’জন খেলোয়াড় খেলানোর পক্ষে মুশফিক। তাঁর মতে, ‘আপনারা জানেন যে সাকিব যেহেতু নেই, সেহেতু আমাদের অবশ্যই দুই জন খেলোয়াড়কে খেলাইতে হবে। অবশ্যই আমাদের চেষ্টা থাকবে ব্যাটসম্যান কয়টা নিয়ে খেলতে পারি কিংবা এক্সট্রা পেসার নেয়া যায় কি না অথবা এক্সট্রা একজন স্পিনার নেয়া যায় কি না।’ যদিও বাংলাদেশ টেষ্ট দলের অধিনায়ক মুশফিক প্রতিকুল অবস্থায়ও জয়ের জন্য লড়াই করা মানসিকতা নিয়ে মাঠে নামতে চান।

অন্যদিকে ,প্রথম টেস্টের আগে সংবাদ সম্মেলনে দক্ষিণ আফ্রিকা অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিস বলেই দিয়েছেন সাকিব না থাকায় বেশ খুশি তিনি। পাশাপাশি বাংলাদেশ দলের জন্য যে এটা অনেক বড় আঘাত সেটাও মানছেন তিনি। ডু প্লেসিস বলেন,‘সে একজন সিনিয়র ক্রিকেটার এবং এমন একজন যে কিনা যেকোনো কন্ডিশনে পারফর্ম করতে পারে। সুতরাং এটা তাদের জন্য অনেক বড় ক্ষতি। তবে আমি খুব খুশি যে সে খেলবে না। ‘প্রোটিয়া অধিনায়ক আরো বলেন,  ‘আমরা কোনো বাংলাদেশি খেলোয়াড়কেই হালকাভাবে নিচ্ছি না। আমরা জানি তাদেরকে হারাতে হলে আমাদের ভালো খেলতে হবে। আমরা যদি আমাদের সেরাটা দিয়ে এই কন্ডিশনে খেলতে পারি তাহলে বাংলাদেশের জন্য এটা কঠিন হবে আর একইভাবে বাংলাদেশ যদি তাদের সর্বোচ্চটা দিয়ে খেলতে পারে এবং আমরা ব্যর্থ হই তাহলে বেশ ভালো প্রতিযোগিতা হবে।’

ছবিঃ গুগল

 

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন amar@pranerbangla.com