ল্যাপটপের নতুন মাত্রা যোগ করলো সারফেস প্রো ৫

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

প্রযুক্তি প্রতিদিন উন্নতির পথে হাটছে, যা আজ নতুন তা পরের দিন সকাল আসতে আসতে সেই একই বস্তু হয়ে যেতে পারে পুরাতন। নতুন নতুন জিনিস তৈরী হচ্ছে প্রতিদিন বা বলতে পারেন পুরান জিনিসগুলোকে আরো উন্নত করে হাজির করা হচ্ছে আমাদের দৈনন্দিন জীবনে।
নতুন জিনিস আবিষ্কারের সাথে সাথে বাড়ছে দামের পরিমানও কিন্তু সৌখিন মন কি আর এক জিনিস বার বার ব্যাবহার করতে চায়,তা দাম যাই হোক না কেন নতুন জিনিসটা ব্যবহার করাই আমাদের লক্ষ্য ।
গ্রাহকদের এই সৌখিন মনোভব সেই একই সাথে দুর্দান্ত গতির চাহিদাকে মাথায় রেখে মাইক্রোসফট প্রথম বাজারে নিয়ে আসে সারফেস প্রো ২০১৩ সালে, তারই ধারাবাহিকতা বজায় রেখে আবারো মাইক্রোসফট নিয়ে এলো সারফেস প্রো ৫ (২০১৭)। সারফেস প্রো হল ল্যাপটপ জগৎতের এক নতুন মাত্রা, এর মধ্যে রয়েছে এমন কিছু ফিচার যা এই সারফেসকে করেছে অন্য সবার থেকে আলাদা।
মাইক্রোসফট এই পর্যন্ত ৫টি সারফেস প্রো বের করতে সক্ষম হয়েছে যার একটি আরেকটি থেকে স্টাইলিশ এবং নতুন নতুন ফিচার দ্বারা আরো প্রানবন্ত করা হয়েছে সবার কাছে।
মাইক্রোসফট এই পর্যন্ত ৫টি ধাপে সারফেস প্রো বের করেছে। তারা সর্বপ্রথম সারফেস প্রো মুক্তি দেয় ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ যার মাধ্যমে তারা ভালো একটি সারা ফেলে ছিল ল্যাপটপের জগতে, এরপর তারা ২২ অক্টোবর ২০১৩ তে তাদের ২য় সারফেস প্রো বের করে। ঠিক একই ধারা বজায় রেখে ২০ জুন ২০১৪ তে তারা সারফেস প্রো ৩ বের করে থাকে।
এরপর তারা ২৬ অক্টোবর ২০১৫ তে সারফেস প্রো ৪ বের করে এবং সর্বশেষ তারা ১৫ জুন ২০১৭ তে সারফেস প্রো ৫ মুক্তি দেয়, যা এখন পর্যন্ত তাদের সবচেয়ে উন্নত প্রোডাক্ট।
নতুন এই সারফেস প্রো তে থাকছে ইন্টেল ৭ম জেনারেশন কেবি লেক (KABY LAKE) কোর প্রসেসর যা অন্য ল্যাপটপের থেকে অনেক দ্রুতগামী হবে বলে জানা যায়, আপনি ৩টি মডেলের প্রসেসর পাচ্ছেন এই সারফেস প্রো তে, মডেল গুলো হল m3,i5,i7 যাদের মধ্যে পাবেন উচ্চ গতি সম্পন্ন ক্লক স্পিড।
প্রথম বারের মত তারা প্রসেসর m3 এবং i5 উভয় মডেল চলবে ফ্যান ছাড়া যেখানে তারা কুলিং চিপ ব্যবহার করেছে, এখানে আপনি পাচ্ছেন বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে র্যাম এবং এস এস ডি। যেখানে র্যাম পাবেন আপনি ৪,৮,১৬ জিবি তে এবং এসএসডি পাবেন ১২৮,২৫৬,৫১২,১০২৪ জিবি যা আগের সারফেস প্রো ৪ এর মত ক্যাটাগরিতে বিক্রি করছে তারা।
নতুন সারফেস প্রো তে আপনি পাচ্ছেন কিক স্ট্যান্ড (Kick stand) যা দিয়ে আপনি ১৬৫ ডিগ্রি এঙ্গেল সমতল করে ব্যবহার করতে পারবেন, সব থেকে মজার বিষয় হল আপনি সারফেস প্রো তে পাবেন সিম ব্যাবহার করার সুবিধা যেখানে আপনি ৪জি পর্যন্ত নেটওয়ার্ক সাপোর্ট করে এই রকম সিম ব্যবহার করতে পারবেন।
আরো থাকছে একটি ফুল সাইজ USB 3.0. একটি মাইক্রো.এস ডি কার্ড রিডার, হেডসেট জ্যাক, মিনি ডিসপ্লে পোর্ট, কভার পোর্ট এবং একটি সারফেস কানেক্ট প্রো যা আপনি ওয়াল চার্জার এর সাথে যুক্ত করতে পারেন।
আপনি আরো ৪টি রঙের সারফেস প্রো পাচ্ছেন বাজারে এবং ডিসপ্লের উপরে পাচ্ছেন ৫ মেগাপিক্সেলস ওয়েব ক্যাম ।
সারফেস প্রো ৫টির ওজনটি হবে ৭৫০-৮০০গ্রাম যা অন্য ল্যাপটপ থেকে অনেক পাতলা এবং হাল্কা হবে, সারফেস প্রো ডিসপ্লে রেসুলেশন হবে ২৭৩৬*১৮২৪।
এছাড়া আপনি পাচ্ছেন স্টাইলিশ ডিসপ্লে এবং সারফেস পেন যা দ্বারা আপনি আগের থেকে বেশি দ্রুত প্রজেক্ট করতে পারবেন, আর মাইক্রোসফট তাদের সারফেস প্রো তে ব্যাটারী লাইফ দিয়েছে ১৩ ঘন্টা ব্যাকআপ ব্যাটারী।
সবদিক থেকে ধরতে গেলে বাজারে সেরা ল্যাপটপ টি এখন সারফেস প্রো বলা যেতে পারে।
সারফেস প্রো টি আপনি কিনতে পারবেন বিভিন্ন দামে তবে বাজারে আপনি ৭৯৯ ডলার থেকে ২৬৯৯ ডলার পর্যন্ত, বাংলাদেশে বাজারে আপনি অতি শীঘ্রই পেয়ে যাবেন সারফেস প্রো।

সাইফ তনয় (টেক ব্লগার)  
ছবিঃ গুগল

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন amar@pranerbangla.com