রেখার জন্মদিনে…

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

তিনি হাসলেন, তিনি কাঁদলেন, তিনি ভালোবাসার স্রোতে ভাসলেন, তিনি রইলেন একা। তিনি রেখা। অভিনয় শিল্পী রেখা হিসেবেই যার পরিচয়। ১৯৫৪ সালের এই দিনে ভারতের চেন্নাইতে জন্মগ্রহণ করেন রেখা। আজ এই অনন্য অভিনয় শিল্পীর জন্মদিনে প্রাণের বাংলার পক্ষ থেকে রইলো শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা।

ভানুরেখা গণেশন ওরফে রেখা।১৯৬৬ সালে শিশু শিল্পী হিসাবে তেলুগু সিনেমায় আত্মপ্রকাশ করেন তিনি। মূল স্রোতের বাণিজ্যিক সিনেমা ছাড়াও বহু নান্দনিক মাত্রার সিনেমায় অভিনয় করেছেন।  দীর্ঘ ৪০ বছরের চলচ্চিত্র জীবনে তিনি মোট ১৮০টিরও বেশি সিনেমায় অভিনয় করেছেন। তিনবার জিতে নিয়েছেন ফিল্মফেয়ার পুরস্কার, দুইবার শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী হিসেবে ও একবার শ্রেষ্ঠ সহঅভিনেত্রী হিসেবে। ১৯৮১ সালে ‘উমরাও জান’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। ২০১০ সালে তিনি ‘পদ্মশ্রী’ পুরস্কার পান।বর্তমানে ভারতের রাজ্যসভারও সম্মানিত সদস্য রেখা।

অসাধারণ তাঁর শারীরিক সৌন্দর‌য, অসাধারণ তার অভিনয় ক্ষমতা। এই দুটি গুণ সম্বল করে রেখা পাড়ি দিয়েছেন দীর্ঘ পথ। ভারতীয় সিনেমার জগতে আবেদনময় উপস্থিতির অকম্পিত এক দীপশিখা হিসেবে পরিচিত হলেও অভিনয়ের ক্ষমতা তাকে বসিয়েছে সুঅভিনেত্রীর আসনেও। দো আনজানে, খুবসুরাত, সিলসিলা আর উমরাওজানের মতো অসাধারণ ছবিতে অভিনয় করে তিনি হিন্দী সিনেমার ইতিহাসে নিজের নামকে চিরস্থায়ী করে তুলেছেন।

অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে সফল পর্দা জুটির মতো পর্দার বাইরেও তাদের সম্পর্ক ঝড় তোলে বিশ্বব্যাপী হিন্দী সিনেমার দর্শকদের মনে। যদিও শেষ পর্যন্ত বিয়েতে গড়ায়নি সেই সম্পর্ক। সম্প্রতি গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে জানা যায়, নায়ক অমিতাভের জন্য এখনো সিঁদুর পরেন রেখা। যদিও প্রয়াত স্বামী মুকেশ আগারওয়াল মৃত এবং বিনোদ মেহরার সঙ্গে বিয়ের কথাও অস্বীকার করেননি তিনি। এরপরও তার সিঁথিতে জ্বলজ্বল করে সিঁদুরের লালচিহ্ন। তবে কি অমিতাভের জন্যই সিঁদুর পরেন তিনি? এই কিছুদিন আগে এমন কথাই প্রকাশিত হয়েছে একটি ভারতীয় গ্লামার ম্যাগাজিনে। সম্প্রতি আর বাল্কির ‘শামিতাভ’ ছবিতে একসঙ্গে অভিনয় করেছেন ৭২ বছর বয়সি অমিতাভ বচ্চন ও ৬০ বছর বয়সি রেখা। আবার সেই জুটি ফিরে এসেছে আলোচনায়।

রেখাকে জীবনধারনের তাগিদে সিনেমায় নেমে পড়তে হয় অল্প বয়সেই। রেখা ১৯৬৬ সালে রাঙ্গোলা রত্নাম নামে একটি তেলেগু ছবির মাধ্যমে শিশুশিল্পী হিসেবে চলচ্চিত্র জীবন শুরু করেন। কিন্তু নায়িকা হিসেবে ১৯৭০ সালে শাওন ভাদো নামে একটি ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে তিনি বলিউডে যাত্রা শুরু করেন। যদিও প্রথম দিকে তার কিছু ছবি সাফল্য পায় কিন্তু সত্তর এর দশকের মাঝের দিকে রেখা অভিনেত্রী হিসেবে পরিচিতি অর্জন করেন।

লড়াই আর নিজের যোগ্যতাকে প্রমাণ করেই খ্যাতির শিখরে উঠে এসেছেন এই অভিনেত্রী। আলোচনা, সমালোচনার আগুন টপকে গিয়ে শেষে বিজয়ের হাসি হেসেছেন তিনি।

বিনোদন ডেস্ক

তথ্যঃ ইন্টারনেট

ছবিঃ গুগল

 

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন amar@pranerbangla.com