রেকর্ডের সামনে সাকিব

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আহসান শামীমঃ সাকিব আল হাসানের জন্য ২০১৭ সেরা বছর। এই সালেই ব্যাক্তিগত নানা মাইলফলক ছুঁয়েছেন সাকিব। গত ৫ বছরের হিসেব অনুযায়ী আইসিসির এক পরিসংখ্যানের তথ্যে দৌঁড়ে রান তোলা ক্রিকেটারদের মধ্যে সাকিব আছেন দুইয়ে।  মোট রানের ২২.৪৮ শতাংশ রান তুলেছেন সাকিব শুধু দৌঁড়ে। সাকিবের উপরে আছেন কেবল সরফরাজ। আর সাকিবের পরে আছেন লংকান উইকেট কিপার ব্যাটসম্যান নিরোশান ডিকাভেলা। ২২.০৫ রান তুলেছেন তিনি শুধু দৌঁড়ে। ৪র্থ স্থানে আছেন সাউথ আফ্রিকার কুইন্টন ডি কক আর ৫ম স্থানে সাবেক জিম্বাবুয়েয়ান ব্যাটসম্যান ব্রেন্ডন টেইলর।

ওয়ান ডে ক্রিকেটে পাঁচ হাজার রানের মাইনফলক স্পর্শ করতে সাকিবের দরকার আর মাত্র ১৭ রান। ১৭ রান করতে পারলেই তিনি বাংলাদেশিদের মধ্যে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রানের ক্রিকেটার আর ক্রিকেট বিশ্বে পঞ্চম অলরাউন্ডার হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করবেন, যাদের ন্যূনতম রান ৫ হাজার এবং উইকেট কমপক্ষে ২০০ টা। রোববার থেকে শুরু হতে যাওয়া দক্ষিন আফ্রিকার বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজে ওয়ান ডে শুরু আগেই এমন এক ঐতিহাসিক রের্কডের সামনে দাঁড়িয়ে আছেন সাকিব।

ওয়ান ডে ক্যারিয়ারে ১৭৮ তম ম্যাচেই হয়তো ১৭ রান করে এই রেকর্ডও নিজের নাম লেখাবেন রেকর্ডের বরপুত্র সাকিব আল হাসান। এছাড়া ২২৪ উইকেট নিয়ে বাংলাদেশের ওয়ানডে ক্রিকেট ইতিহাসে এখন পর্যন্ত দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উইকেটের মালিক হয়ে আছেন তিনি ।প্রথম অবস্থানে আছেন বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফি ২৩০ উইকেট নিয়ে। পরিসংখ্যান বলছে এর  আগে এই রেকর্ড মাত্র চার ক্রিকেটারের আছে। শীর্ষে আছেন শ্রীলঙ্কার সনাথ জয়াসুরিয়া ৪৪৫ ম্যাচে ১৩৪৩০ রান ও ৩২৩ উইকেট।এরপরে দক্ষিণ আফ্রিকার জ্যাক ক্যালিস ৩২৮ ম্যাচে ১১৫৭৯ রান ও ২৭৩ উইকেট। তৃতীয়তে পাকিস্তানের শহীদ আফ্রিদি ৩৯৮ ম্যাচে ৮০৬৪ রান ও ৩৯৫ উইকেট। এরপরে পাকিস্তানের আব্দুর রাজ্জাক ২৬৫ ম্যাচে ৫০৮০ রান ও ২৬৯ উইকেট। মাত্র ১৭ রান করতে পারলেই সাকিব পাঁচ নাম্বার অবস্থান করবে এমন এক অনন্য রেকর্ডে।

দক্ষিণ আফ্রিকার কিংবদন্তী অলরাউন্ডার জ্যাক ক্যালিস ইতিমধ্যেই সাকিবের প্রশংসায় পন্চমুখ।দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক অলরাউন্ডার জ্যাক ক্যালিসের সাথে ড্রেসিং রুম শেয়ার করার অভিজ্ঞতা আছে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের। আইপিএলে কলকাতা নাইট রাইডার্স দলের হয়ে খেলেছিলেন দুইজন। ক্যালিস বলেন, ““সাকিব দারুণ খেলোয়াড়। বিশেষত ধীরগতির নিচু বাউন্সের উপমহাদেশীয় উইকেটেও ভীষণ কার্যকর বোলার। খুব চতুরও। আর ব্যাটিংয়ে সাকিব আক্রমণাত্মক ধাঁচের। সাকিব বাংলাদেশের জন্য অনেক বড় মাপের খেলোয়াড় যার উপস্থিতিতে  দল অন্যরকম শক্তি অনুভব করে।”

ছবিঃ গুগল

 

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন amar@pranerbangla.com