মনরোর বাড়ি নিলামে

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মাত্র ৩৬ বছর বয়সে নিজের জীবন প্রদীপ নিজের হাতে এই বাড়িতেই নিভিয়ে দিয়েছিলেন তিনি। রহস্যময় মৃত্যুর মাঝে আরো এক গভীর রহস্য হয়ে মিলিয়ে গেছেন। বলছি পৃথিবীর রূপবতী, লাস্যময়ী কন্যা মেরিলিন মনরোর কথা। ১৯৬২ সালে আগস্ট মাসে নিজের বাড়িতে আত্নহত্যা করেন হলিউডের কিংবদন্তীসম এই অভিনেত্রী। মাত্রাতিরিক্ত নেশাদ্রব্য গ্রহণই তার মৃত্যুর কারণ। তবে এই মৃত্যুর ঘটনার ওপর আজো এক রহস্যের চাদর পাতা আছে। মনরো মারা যান তার লস অ্যাঞ্জেলসের বাড়িতে। এতো বছর পর সেই বাড়ি নিলামে উঠেছে। বিখ্যাত এই বাড়ির বিক্রয় মূল্য ৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

মনরো বাড়িটি কিনেছিলেন ১৯৬২ সালেই। তখন সদ্য তার তৃতীয় স্বামী প্রখ্যাত লেখক আর্থার মিলারের সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটেছে। কিন্তু বাড়ি কিনে সেখানে বেশীদিন বসবাস করতে পারেন নি মেরিলিন মনরো। কয়েক মাসের মধ্যেই মৃত্যু তাকে বিচ্ছিন্ন করে সবকিছু থেকে।

বিাড়ি কেনার কিছুদিন পর মনরো এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, বাড়িটি তিনি কিনেছেন বন্ধুদের জন্য। যখনই তার কোন বন্ধু কোন সমস্যায় পড়বে সে ওই বাড়িতে এসে থাকতে পারে।বিশাল জায়গাসহ বিলাসবহুল বাড়ির ভেতরে রয়েছে চারটি শোবার ঘর, চারটি বাথরুম। রিয়েল এস্টেট এজেন্ট লিসা অপটিক্যান বলেছেন, মনরোর মতো একজন মানুষ এই বাড়িতে বসবাস করেছিলেন। বিষয়টা ক্রেতাকে আলাদা একটি অনুভূতি দেবে তাতে কোন সন্দেহ নেই।

বিনোদন ডেস্ক
তথ্যসূত্রঃ টাইমস অফ ইন্ডিয়া
ছবিঃ গুগল

 

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন amar@pranerbangla.com