ভালোবাসা আমার বাংলাদেশ

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ফেইসবুক এর গরম আড্ডা চালাতে পারেন প্রাণের বাংলার পাতায়। আমারা তো চাই আপনারা সকাল সন্ধ্যা তুমুল তর্কে ভরিয়ে তুলুন আমাদের ফেইসবুক বিভাগ । আমারা এই বিভাগে ফেইসবুক এ প্রকাশিত বিভিন্ন আলোচিত পোস্ট শেয়ার করবো । আপানারাও সরাসরি লিখতে পারেন এই বিভাগে । প্রকাশ করতে পারেন আপনাদের তীব্র প্রতিক্রিয়া।

রাহুল পন্ডা

মাঝে মাঝেই মনে হয় এ শালার উপমহাদেশে না জন্মালেই হত। চাদ্দিকে লোক গিজগিজ, এণ্ডিগেন্ডির গজল্লা, প্রতিনিয়ত চা-পান-বিড়ি,বিরক্তিকর ধম্মকম্ম, দু’দিন ছাড়া মাইক-হ্যালোজেন, তারস্বরে চিৎকার। এবং সবার উপর স্বয়ং বাবা ফেসবুক। যত রাজ্যের ভুঁইফোঁড় ছাগলদের চিরহরিৎ ক্ষেত্র, গাঁয়ে মানে না আপনি মোড়লদিগের মুক্তাঞ্চল।

এর চেয়ে কী ভালোই হত যদি ইউরোপ বা আমেরিকায় জন্মাতুম, নিদেনপক্ষে নিউজিল্যান্ড বা ফিজিতে। সুন্দর সব সাজানো-গোছানো দেশ, সবুজ সবুজ পার্ক, টলটলে নদী, তুষারঠাসা গিরিবর্ত্ম, নীল আকাশ। চাইলেই বুক টেনে অক্সিজেন নেওয়া যায়, গরম পড়লে জলের জন্য ত্রাহিত্রাহি হাহাকার পড়ে না। কিছু টাকা-পয়সা জমিয়ে চলে গেলেই হয় এবার, যেকোন একটা ‘ল্যান্ড’-ওয়ালা দেশ বেছে সেটল করলেই লুডোর ছকের মতো রংদার ভবিষ্যৎ।

এসব ভাবতে ভাবতেই মেস ছেড়ে বেরিয়ে পড়ি কখন। বাইরে অলস অপরাহ্ন, দিগন্তজুড়ে শেষ বিকেলের কনে দেখা আলো। আনমনে সুকান্ত সেতুতে গিয়ে দাঁড়াই। সামনে সার দেওয়া কেপিসির হলদেটে বাড়িঘর, দূরে গলফগ্রিনের টাওয়ারের মাথায় আলো, আরও দূরে ধোঁয়া ধোঁয়া সাউথ সিটি। আচমকা এক ঝলক বাতাস দেয়। একযুগ আগে ঠাকুমার গপ্পোদের ফাঁকে যেমন নিবিড় বাতাস দিত। কানের খাঁজে অগোছালো চুল উড়তে থাকে। হাওয়া হাওয়ায় চোখ আপসেই বুজে আসে, চাদ্দিকে টাটকা মুকুলের গন্ধ, নিখাদ বসন্ত।

উলটো দিকে দেখি একখানা অস্থায়ী ডাবের দোকান। বিক্রেতা লোকটির মেঠো চেহারা। সারাদিনের ব্যবসা-পাতি শেষে শ্যামলা-গড়ন ডাবগুলো তুলে রাখছিল বস্তায়। তার পাশে গিয়ে দাঁড়াই। জিজ্ঞেস করি, ‘দাদা, ডাব হবে নাকি?’ লোকটা একগাল হেসে বলে, ‘খুব ভাগ্যি আপনার, এই আর একটাই আছে।’ কেটে-কুটে ডাবখানা স্ট্র গুঁজে এগিয়ে দেয় আমার দিকে। মিছরির মতো মিষ্টি জল, বরফের মতো ঠাণ্ডা। জল খেতে খেতে উপরের দিকে তাকাই, আকাশী ক‍্যানভাসে নীলের ছোপ, আসমানজুড়ে অপার শান্তি। কে যেন বলছিল সেদিন, বাসন্তী পুজো এসে গেল।

ভালো লাগছিল বেশ। আর বোধহয় কোথাও না গেলেও চলে। এই ক্ষণস্থায়ী মুকুলের দিন, এই নতুন পাতা, এই ঠাণ্ডা জল, বিশ্বের আর কোথায় মেলে! ভালোবাসা, বাংলাদেশ।

ছবি: লেখক

 

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন amar@pranerbangla.com