বিশ্বকাপের জন্য অভিজ্ঞতা জমা রাখতে চান মাশরাফি

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আহসান শামীমঃ ‘২০১৯ বিশ্বকাপের জন্য জমা থাক চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি থেকে পাওয়া অভিজ্ঞতাগুলো’।’এমন ম্যাচে আরও ভালো খেলা শিখতে হবে’। দল নিয়ে, খেলা নিয়ে টাইগার দলপতি মাশরাফির বক্তব্য এরকমই। বিশ্ব ক্রিকেটের অনেক সাবেক কিংবদন্তী ক্রিকেটারই মেতেছেন টাইগারদের বন্দনায়। তালিকায় এবার যোগ দিয়েছেন ভারতের সাবেক অধিনায়ক রাহুল দ্রাবিড়ও। বাংলাদেশের সাফল্যকে অনেক বড় করে দেখছেন তিনি। পাশাপাশি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি থেকে টাইগাররা অনেক কিছু অর্জন করেছে বলেও মনে করেন তিনি। সম্প্রতি বাংলাদেশ সম্পর্কে এক আলোচনায় দ্রাবিড় বলেন,‘এই টুর্নামেন্ট থেকে বাংলাদেশের অনেককিছু নেওয়ার আছে। টুর্নামেন্ট শেষ করে এখন তাদের অনেক কিছু ভাবার আছে। তার মধ্যে একটি ভাবনা তাদের অধিনায়ক মাশরাফি সম্পর্কে।’

দ্রাবিড় ভূয়সী প্রশংসা করেছেন টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজারও। তাঁর মতে এখনও বাংলাদেশ দলের সেরা বোলার মাশরাফি। সেমিফাইনালেও তিনি সেটা প্রমাণ করেছেন উল্লেখ করে সাবেক এই ভারতীয় ক্রিকেটার বললেন,‘স্পষ্টত, মাঠে নজর দিলে আপনি দেখবেন, মাশরাফি এখনও দলের সেরা বোলার, এবং আজ (সেমিফাইনালে) আরও একবার সে এটা প্রমাণ করেছে। কিন্তু ২০১৯ বিশ্বকাপ আর মাত্র দুই বছর পরই, এবং তাদেরকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে মাশরাফি আগামী দুই বছর দলের সঙ্গে থাকতে পারবে কি না।’

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেমিফাইনাল ম্যাচটা বিশ্লেষণে আইসিসির কলামে কুমার সাঙ্গাকারা লিখেছেন,‘বাংলাদেশের জন্য ভারত বরাবরই কঠিন প্রতিপক্ষ হতো। ভারতের বোলিং শক্তিশালী আর বৈচিত্র্যময়। ব্যাটসম্যানরা দারুন ফর্মে আছে আর অবাক করার মত হলেও তাদের ফিল্ডিং এবারের আসরের সেরা।বাংলাদেশ দলে হাই ভোল্টেজ নক আউট ম্যাচে খেলার অভিজ্ঞতার অভাব চোখে পড়েছে। ২২ ওভারে মাত্র দুই উইকেটে ১৫৪ রান তুলে ফেলেছিল বাংলাদেশ।কিন্তু কোহলি যখন যাদবকে বল তুলে দেন তখন ম্যাচের মোড় ঘুরে যায়। যাদবের অফ স্পিনে দুই সেট ব্যাটসম্যান তামিম ও মুশফিক বিদায় নিয়েছিল। ভারতের ব্যাটিং লাইন আপের ভয়ের কারনেই হয়তো বড় স্কোর গড়ার চাপে ছিল বাংলাদেশ।এই চিন্তায় হয়ত ব্যাটসম্যানরা আগেভাগেই দ্রুত রানের জন্য গিয়েছিল। কিন্তু তাদের উচিত ছিল উইকেট হাতে রেখে শেষের দিকে হাত খুলে খেলা।’

ছবিঃ গুগল

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন amar@pranerbangla.com