দ্রোণাচার্য ঘোষের তিনটি কবিতা

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নকশালপন্থী বিপ্লবী দ্রোণাচার্য ঘোষ ১৯৭১ সালের ৭ ফেব্রুয়ারী পুলিশের গুলিতে নিহত হন।

বিপ্লব জ্বলে

প্রত্যেক ঘরে গর্জে উঠছে আজকে লক্ষ ছেলে
প্রত্যেক গ্রামে ঘাঁটি গড়া চাই এই কথা ভুলে গেলে
বিষম সর্বনাশ।

তাই আজ জাগে নতুন সূর্য। নতুন দিনের মাস।
বিপ্লবী দিন বুকে এসে বাজে ছুড়ে ফ্যালো ভীরু ঘুম
ক্রীতদাস বেলা কাটানো এখন নয়।

এখন আমরা নির্ভীক নির্ভয়
এখন সময় নেই ওড়ানোর বৃথা কোনো কালো ধূম।

পৃথিবী সচল, বিপ্লব আগুয়ান
সেই পথে যেতে মজদুর হাতে থাকুক লাল নিশান
অন্য ভাবনা ভাবার সময় আজকে যে আর নেই
বিপ্লব জ্বলে প্রতি বুকে বুকে মুক্তির বাতাসেই।

 

 

তোমার উদ্দেশ্যে শেষ কয়েক ছত্র

থমকে থাকা নীরব আমার কান্না

তোমাকে নিয়ে আর না,
ভালোবাসার জ্যোৎস্না মেদুর চন্দ্র
তোমাকে নিয়ে আর না।

আমার এখন রক্তে বাজে সংগ্রাম
শোষণ ছেঁড়ার জন্য গভীর সংগ্রাম
আমার এখন বুকের ভেতর গর্জায়
নতুন আলো আনার জন্য সংগ্রাম।

 


বিকেলের ক্রমশ বিলীন রোদে তোমাকেই মনে পড়ে

বিকেলের ক্রমশ বিলীন রোদে রোদে তোমাকেই মনে পড়ে, তুমি
আমার সংগ্রামী দিনের উজ্জ্বল চেতনা;
মোহময় বয়সের ক্রমব্যাপ্ত দিওেন
সমস্ত কাজের সঙ্গে তুমি।

একদা তোমাকে চেয়েছিলাম গোপন ঘরে; আজ
সে সব চিন্তাকে দূর কবরে পাঠিয়ে
আমি নতুন মানুষ। নির্জনতা নয় আর সংগ্রামী জীবন
আমার চেতনাময়, আমার বয়স
উজ্জ্বল রোদের স্বপ্নে ঘেরা।

বিকেলের ক্রমশ বিলীন রোদে রোদে তোমাকেই মনে পড়ে, তুমি
আমার কমরেড হলে, সমস্ত জীবন
শোষণ ছেঁড়ার জন্য লড়াইয়ের মাঠে
সমর্পিত হয়ে আছে, অন্য কিছু নয়।

ছবি:গুগল

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন amar@pranerbangla.com