টাইগারদের বাঁচালো বৃষ্টি

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আহসান শামীমঃ চরম ব্যাটিং ব্যার্থতায় ৫০ ওভারও উইকেটে টিকতে পারলো না বাংলাদেশ । জয়ের জন্য মাত্র ১৮৩ রান টার্গেট অজিদের। শেষ পর্যন্ত সম্মান বাঁচাতে বৃষ্টিই হয়ে উঠলো একমাত্র ভরসা। বৃষ্টি ঝরেছিলো ঠিকই কিন্তু স্থায়ী হয়নি । খেলা যথারীতি শুরু।ব্যাট হাতে অস্টেলিয়ার দুরান্ত সূচনা ।১৬ ওভার খেলা মাঠে গড়ানোর পরই আবার হানা দেয় বৃষ্টি। বৃষ্টির কারণে দ্বিতীয় দফায়  খেলা বন্ধের আগ পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ছিলো ১৬ ওভারে ১ উইকেটে ৮৩ রান। কিন্তু তৃতীয় দফায় আবারও বৃষ্টি ফিরে এলে প্রকৃতির এই লুকোচুরি খেলায় পরিত্যক্ত হলো ম্যাচ । টাইগারদের সামনে সেমিফাইনালের সম্ভাবনাও উন্মুক্ত থাকলো । সহজ হিসাব ইংল্যান্ডের জিততে হবে দুটি ম্যাচ আর বাংলাদেশকে হারাতে হবে নিউজিল্যান্ডকে ।

টসে জিতে মাশরাফির ব্যাটিং নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে বিতর্ক।সিদ্ধান্তে বিস্মিত সাবেক অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার টম মুডিও। শ্রীলঙ্কার সাবেক কোচ ও বর্তমানে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) সানরাইজার্স হায়দ্রবাদের কোচের দায়িত্বে থাকা মুডি বিস্ময় প্রকাশ করেছেন টুইটারে।এক টুইটে তিনি লিখেছেন, ‘বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকার পরও বাংলাদেশকে টসে জিতে ব্যাটিং নিতে দেখে ভিষণ অবাক লাগলো। আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলছে আজ ওভালে বৃষ্টি  ঝিরিঝিরি বৃষ্টি চলবে সারারাত ধরেই।  ম্যাচে বৃষ্টির বাগড়া থাকলে ’কার্টেল ওভারের ম্যাচ হবার সম্ভাবনাই প্রবল। আগে বোলিং করলে কার্টেল ওভারের সুবিধা নেওয়া যেত।

কাল ব্যাট হাতে তামিম ছাড়া বাকী ব্যাটসম্যানরাও ছিলেন চুড়ান্ত ব্যার্থ ।অস্টেলিয়ার বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে টসে জিতে টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি ফিল্ডিং এ পাঠালেন অজিদের । ব্যাট হাতে বাংলাদেশ নয়, শুধু তামিম খেললেন অজিদের বিপক্ষে । তামিমের ব্যাট থেকে আসে ১১৪ বলে খেলা ৯৫ রানের আরেকটা দুর্দান্ত ইনিংস। তামিমের ইনিংস জুড়ে ছয়টা চার ও তিনটা ছয়ের মার ছিল। সেঞ্চুরি থেকে মাত্র পাঁচ রান দূরে থেকে মিচেল স্টার্কের বলে পুল করতে গিয়ে থার্ড ম্যানে কট আউট হন ওপেনার তামিম। তামিম ছাড়া দুই অঙ্কের স্কোর ছুয়েছিলেন সাকিব আর মিরাজ।  দুই ম্যাচে ১১১.৫ গড়ে রান করে  বাঁহাতি ওপেনার তামিম গতকাল সেঞ্চুরি করতে না পারলেও ,চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ধাওয়ানের রেকর্ড ভাঙ্গলেন। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির প্রথম দুই ম্যাচে ২০১৩ সালে ভারতের শেখর ধাওয়ান করেছিলেন। ২১৬ রান। আর চার বছর পর তামিম ছাড়িয়ে গেলেন ধাওয়ানের গড়া রেকর্ডটাও । প্রথম দুই ম্যাচে তামিমের মোট রান ২২৩।

অজিদের হয়ে দিনের সেরা বোলার ছিলেন মিচেল স্টার্ক। শেষের দিকে এসে দ্রুত চার উইকেট শিকার করেন তিনি। এছাড়া অ্যাডাম জ্যাম্পা দুই উইকেট শিকার করেন।  এবারের চ্যাম্পিয়ান্স ট্রফির খেলায় এ পর্যন্ত এটাই কোন দলের সর্বনিম্ন স্কোর । বাংলাদেশের পক্ষে একমাত্র উইকেট শিকার করেন রুবেল ।

ছবি: গুগল

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন amar@pranerbangla.com