ঝাল মিষ্টির মহাভোজ

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নাজিয়া ফারহানা

হাতেগুনে শীত আর কয়েকটা দিন। যদি এখনও হাঁস আর খিঁচুড়ি না খেয়ে থাকেন তাহলে আর দেরী নয়।শীতে হাঁস খাওয়ার মজাই আলাদা।আর শেষ পাতে মিষ্টান্ন, তুলনাই হয়না।এবারে হাঁস ভুনা, খিঁচুড়ি আর মিষ্টান্ন ‍নিয়েই আমাদের আয়োজন। আপনাদের জন্য রেসিপি দিয়েছেন নাজিয়া ফারহানা।

হাঁস ভুনা

 হাঁস ভুনা

উপকরণ: হাঁস ১ টি – পিয়াজ কুচি ১ কাপ – আদা বাটা ২ টেবিল চামচ – পিয়াজ বাটা ২ টেবিল চামচ – রসুন বাটা ২ টেবিল চামচ – মরিচ গুড়া ২ চা চামচ – হলুদ গুড়া ১/২ চা চামচ – ধনে-জিরা গুড়া ১ চা চামচ – লবন সাদমত – চিনি ১/২ চা চামচ ( ইচ্ছা ) – জয়ফল-জয়ত্রি গুঁড়া ১/৪ চা চামচ – গোলমরিচ গুঁড়া ১/২ চা চামচ – গরম মশলার গুঁড়া ১/২ চা চামচ – আস্ত শুকনা মরিচ ৩/৪ টি – আস্ত মেথি ১/৪ চা চামচ – আস্ত জিরা ১/৪ চা চামচ – এলাচ ৪/৫ টি – কালো এলাচ ২ টি – দাল্চিনি ২/৩ টি – তেজপাতা ২ টি – ভাজা জিরার গুঁড়া ১ চা চামচ – পিয়াজ বেরেস্তা ১ টি – কাঁচামরিচ ৫/৬ টি – সরিষার তেল ১/২ কাপ বা পরিমান মত – নারিকেল বাটা ২ টেবিল চামচ।

প্রণালী: প্যানে তেল গরম করে মেথি আর জিরা ফোড়ন দিয়ে বাকি গরম মশলা ও পিয়াজ কুচি দিয়ে দিতে হবে । পিয়াজ কুচি বাদামি হয়ে আসলে একে একে বাটা মশলা, গুড়া মশলা,আস্ত শুকনা মরিচ,লবন ( নারিকেল বাটা,কাঁচামরিচ,ভাজা জিরা গুড়া,চিনি বাদে) দিয়ে কষিয়ে হাঁস দিয়ে দিতে হবে। ঢাকনা ছাড়া হাস কে বেশ কিছুক্ষন কষাতে হবে । প্রয়োজনে একটু একটু পনি দিতে হবে । প্রায় ৩০ মি: কষানোর পর অল্প পানি,নারিকেল বাটা দিয়ে ঢেকে দিয়ে অল্প আচে রান্না করতে হবে । রান্না শেষের দিকে কাঁচামরিচ,জিরাগুড়া ও চিনি দিয়ে নামিয়ে ফেলতে হবে ।

বিন্নী চালের টমেটো খিচুরী

বিন্নী চালের টমেটো খিচুড়ি

উপকরণ: বিন্নী চাল ২০০ গ্রাম, ভাজা মুগ ডাল ১০০ গ্রাম, রসুন ও আদা বাটা দুইচা চামচ, আদা, গরম মসলা (দারুচিনি, এলাচ), কয়েকটা তেজপাতা, ২টা পেঁয়াজ বেরেস্তা, ঘি দুই টেবিল চামচ, তেল এক কাপ, লবণ, চিনি, স্বাদ মতো, কাঁচামরিচ ৪-৫টি , টমেটো ১ কাপ, ধনেপাতা কুচি পরিমান মতো এবং পানি পরিমাণ মতো।

প্রণালী : হাঁড়িতে তেল দিন। এতে আস্ত গরম মসলা, তেজপাতা দিন। চাল, ভাজা ও সেদ্ধ করে রাখা মুগডাল দিন। ভাজা ভাজা হলে অর্ধেক পেঁয়াজ বেরেস্তা ও আদা-রসুন বাটা দিন। পরিমাণ মতো পানি দিয়ে ঢেকে দিন। যদি এক কাপ চাল ও ডালের মিশ্রণ হয় তবে দেড় কাপ পানি দিতে হবে। নামানোর আগে কাঁচামরিচ, লবণ ও পেঁয়াজের বেরেস্তা দিন। এই খিচুড়ি পোলাওয়ের মতো ঝরঝরে হবে। উপরে ঘি ছড়িয়ে পরিবেশন করুন।

সিক্সস্টার ফ্রাই ভেজিটেবল

সিক্সস্টার ফ্রাই ভেজিটেবল

উপকরণ: সবজি ৩ কাপ (গাজর, বিনসস, কড়াইশুটি, ব্রকোলি, বেবি কর্ন, ক্যাপসিকাম), চিকেন স্টক ১ কাপ, সাদা তেল বা অলিভ অয়েল ২ টেবলচামচ, সয়া সস ১ টেবলচামচ, তেরিয়াকি সস ১ টেবলচামচ, কর্নস্টার্চ ১ চা-চামচ, আদা ২ চা-চামচ (কুরিয়ে নেওয়া), রসুন ৩ কোয়া, ব্রাউন রাইস ২ কাপ।

প্রণালী: ননস্টিক পাত্রে রসুন সামান্য নাড়াচাড়া করে নিন। সব সবজি এক মাপে কেটে নিন। তেল গরম করে চিকেন স্টক ও সব সবজি দিন। সমানে নাড়তে থাকুন। ভাজা ভাজা হয়ে এলে এতে সয়া সস ও তেরিয়াকি সস দিয়ে নাড়াচাড়া করুন। সব শেষে কর্নস্টার্চ দিন। শুকনো শুকনো হয়ে এলে আঁচ থেকে নামিয়ে নিন

আপেলের পায়েস

আপেলের পায়েস

উপকরন: আপেল কুচি – ১ কাপ, ঘন দুধ -১ লি, নারকেল কুচি -১/৪ কাপ, পোলাও এর চাল গুঁড়া -১/৪ কাপ,জায়ফল গুঁড়া -১ চিমটি,চিনি এক কাপ, পেস্তা , বাদাম, কিসমিস। ( সাজাবার জন্য)।

প্রণালী: প্রথমে দুধের মাঝে চালের গুঁড়া , নারকেল আর চিনি মিশিয়ে ওভেনে হাই পাওয়ারে ২ মিনিট রান্না করতে হবে। এইবার এর মাঝে আপেল কুচিটা মিশিয়ে আবার ২ মিনিট রান্না করবেন। এই বার এর মাঝে জায়ফল গুঁড়া মিশিয়ে ভালো ভাবে নেরে ১ মিনিট রান্না করলেই হয়ে যাবে মজাদার আপেলের পায়েস। পরিবেশন পাত্রে ঢেলে উপরে পেস্তা, বাদাম আর কিসমিস দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করতে হবে।

রস কদম মিষ্টি

রস কদম মিষ্টি

উপকরণ : ছানা ১ কাপ, মাওয়া ১ কাপ, চিনি আধা কাপ, চিনির দানা প্রয়োজনমত।

প্রনালী : ছানা, মাওয়া ও চিনি একসাথে করে চুলাতে হালকা আঁচে জ্বাল দিতে হবে। হালুয়ার মত প্যন ছেড়ে দলা বেঁধে উঠার আগেই ( নরম অবস্থায়) নামিয়ে নিতে হবে। এর জ্বালের তাক ঠিক মত না হলে গোললা বাঁধবে না। তাই দ্রুত গরম অবসথায় ছোট ছোট গোললা বানিয়ে চিনির দানাতে গড়িয়ে চেপেচেপে গোল সেফ ( সাইজে ) তৈরি করে নিতে হবে। শক্ত হলে আর হবে না। মিষ্টি তৈরির সময় একটু নরম থাকবে চিন্তার কোন কারন নেই। কয়েক ঘনটার মধ্যে একদম শক্ত হয়ে যাবে। একদম পারফেক্ট রসকদম।

মাওয়া তৈরি : গুড়াদুধ আধা কাপ,আইসিং সুগার ২ টে- চামুচ , ঘি ১ টে- চামচ, গোলাপজল ১ চা- চামুচ দিয়ে সব মিশিয়ে চালুনি দিয়ে চেলে নিতে হবে। ব্যস হয়ে গেল মাওয়া। ছানা ও চিনির দানা কিনতে পাওয়া যায়। ইচছা করলে ছানা তৈরি করে নিতে পারেন।

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন amar@pranerbangla.com