গুগল পিক্সেল ২ এবং পিক্সেল ২ এক্সএল এখন বাজারে

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

গুগল ২০১৬ সালে তাদের নিজেদের তৈরি প্রথম দুটি স্মার্টফোন, গুগল পিক্সেল এবং পিক্সেল এক্সএল বাজারে আনে। এই ২ টি ফোনই ছিল ২০১৬ সালের সবথেকে মেজর ২ দুটি হাই এন্ড ফ্লাগশিপ মোবাইল এবং এর দামও ছিল আইফোন ৭ বা গ্যালাক্সি এস ৭ এর প্রায় সমান। সেই সুত্র ধরেই এখন ২০১৭ সালে অক্টোবর গুগল রিলিজ করেছে তাদের আরো দুইটি স্মার্টফোন। গুগল পিক্সেল ২ এবং পিক্সেল ২ এক্সএল।

এমনিতে গুগলের নেক্সাস সিরিজ দারুণ পারফর্মেন্স দিয়ে টেকনোলজি প্রেমীদের নজর কেড়েছে। গুগলের নিজস্ব ব্র্যান্ডের পিক্সেল আসার পর থেকে হইচই পড়ে যায় সব জায়গায়। আগের স্মার্টফোনের পারফর্মেন্স ও গুণগত মানের বিচারে অনায়াসে বলা যায়, স্যামাসাং গ্যালাক্সি নোট ৮ এবং আইফোন এক্স এর সঙ্গে দিব্যি পাল্লা দেবে পিক্সেল ২ এবং পিক্সেল ২ এক্সএল।

এই ফোনের ক্যামেরা, স্ক্রিন আর সফটওয়্যার অংশকে আরো অনেক বেশি শক্তিশালী করা হয়েছে। যদিও আগের পিক্সেল এবং পিক্সেল এক্সএল এর সঙ্গে নতুন পিক্সেল 2 বা পিক্সেল 2 এক্সএল এর খুব বেশি পার্থক্য নেই। তবুও উন্নত হয়েছে অনেক। বিশেষ করে স্ক্রিন আর ব্যাটারির শক্তিতে বড় পরিবর্তন আনা হয়েছে। তবে নতুনটাতে ৩.৫ এমএম হেডফোন জ্যাক আর দেওয়া হয়নি। ইউএসবি-সি পোর্টেই চার্জিং এবং গান দুটোর কাজই চলবে।

পিক্সেল ২ এবং পিক্সেল ২ এক্সএল ডিভাইস দুটিতে ৪ জিবি র‌্যাম ও এন্ড্রোয়েড ৮ এর সাথে থাকছে বর্তমানে পৃথিবীর সবথেকে পাওয়ারফুল চিপসেট কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮৩৫ এবং অ্যাড্রেনো ৫৪০ গ্রাফিকস। পিক্সেল ২ এর ৫ ইঞ্চি ডিসপ্লেতে হয়েছে অ্যামোলেড (AMOLED) ক্যাপাসিটিভ টাসস্ক্রিন এবং পিক্সেল ২ এক্সএল ৬ ইঞ্চি ডিসপ্লেতে পিওলেড (P-OLED) ক্যাপাসিটিভ টাসস্ক্রিন ব্যবহার করা হয়েছে এছাড়া দুটি ফোনেই প্রটেকশনের জন্য ব্যবহার করা হয়েছে গরিলা গ্লাস ৫। ফোন দুটিতেই ৬৪ এবং ১২৮ গিগাবাইট ইন্টারনাল স্টোরেজ ক্ষমতা রয়েছে। টো ফোনেই রয়েছে ১২.২ মেগাপিক্সেল এফ/১.৮ অ্যাপারচার ক্যামেরা যুক্ত হয়েছে। আর সমানে ৮ মেগাপিক্সেল এফ/২.৪ অ্যাপারচার ক্যামেরা। এগুলোতো দারুণ ছবি ওঠে। পারফরমেন্স নিঃসন্দেহে আপনার চাহিদা মেটাবে। পিক্সেল ২ তে ২৭০০ এমএএইচ ব্যাটারি এবং পিক্সেল ২ এক্সএল তে ৩৫২০ এমএএইচ ব্যাটারি ব্যাবহার করা হয়েছে। গুগলের এই ফোনে আরো থাকছে সুপার ফাস্ট ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর সহ ওয়াটার রেসিস্ট্যান্স সুবিধা, যা ফোনকে পানি থেকে সুরক্ষা দিবে।

ওয়ারেন্টি সহ পাওয়া যাচ্ছে অ্যাকুয়া গ্যাজেটে (https://www.facebook.com/aquagadget).

সাইফ তনয় (টেক ব্লগার)
ছবিঃ গুগল

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন amar@pranerbangla.com