গরমে কি পোশাক পরবেন…

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নাসরিন পিংকি

 এ গরমে সব ধরনের পোশাক পরা সম্ভব হয়ে উঠে না।সবাই খোঁজে আরামদায়ক পোশাক।আরামদায়ক পোশাক মানেই সুতি কাপড়ের পোশাক বোঝায়।কিন্ত সুতি পোশাক অনেকে ভাবে সব জায়গায় পরা যায় না।আসলে তা নয় পোশাকে যদি আমরা অল্প নান্দনিকতার ছোয়া দেয় তবে পোশাকটি অতুলনীয় হতে পারে।যেমন আমরা যারা ফতুয়া পড়ি তারা এক রঙের কাপড়ের ফতুয়াতে বিভিন্ন ধরনের লেস লাগিয়ে নান্দনিকতা আনতে পারি।আবার এক রঙের কাপড়ের উপরে ব্লক করিয়েও ফতুয়া বানাতে পারি সুন্দর লাগবে।আর যাদের সময়ের সল্পতা তারা বিভিন্ন দেশী বুটিকস থেকে সুন্দর ফতুয়া কিনতে পারেন।সে গুলো অনেক নান্দনিক।গার্মেন্টসের অনেক ভাল ভাল টি শার্ট পাওয়া যায় সেগুলোও অনেক আরামদায়ক। যারা শাড়ি পরেন  তাদের জন্য বলছি এ গরমে তাঁতের শাড়ি পরে যেমন আরাম তেমন নান্দনিকতার ছোঁয়াও আসে।তাতের শাড়ির সঙ্গে মিল রেখে প্রিন্টের ব্লাউজ,ব্লক,ব্লাউজ,হাতের কাজের ব্লাউজ বা কুর্সিকাঁটা ব্লাউজ ভাল লাগে।যারা সালয়ার কামিজ পরেন তাদের জন্য বর্তমানে অনেক অপশন আছে। গজ কাপড় কিনে বিভিন্ন লেস লাগিয়ে জামা বানিয়ে পরতে পারেন।কম দামের মধ্যে অনেক সুন্দর সুন্দর সালয়ার কামিজ পাওয়া যায় যা এ গরমে পরার জন্য অনেক আরামদায়ক।ব্লক বাটিক এর পোশাক গরমে পরে অনেক আরাম।বর্তমানে আবার হাতের কাজের পোশাকের চল বেড়েছে।পরেও আরাম দেখতেও ভাল লাগে।আমরা হয়তো অনেকে জানি না দেশী লন এর পোশাক গুলো দামও কম, পরেও অনেক আরাম।জামা বানানোর সময় বিভিন্ন ভাবে পাইপিন চলছে যা দেখতে অনেক সুন্দর লাগে।স্কিন প্রিন্টের ড্রেস ও বর্তমানে বেসের চল।লিলেন কাপড়ের জামা অনেক আরামদায়ক।বর্তমানে লিলেনের হরেক রকমের কাপড় মিলে বাজারে, যা দেখতেও অনেক সুন্দর পরেও অনেক আরাম।লিলেনের ওপর নানা ভাবে এমব্রয়ডারি করে জামা বানালে অনেক ভাল লাগে যা এখন বর্তমানে চলমান।এবার আসি ছোটদের পোশাকে।সাধারণত ছোটরা আরামদায়ক পোশাক পরতে পছন্দ করে।সূতি কাপড়ের জামায় বিভিন্ন রঙের লেস দিয়ে ডিজাইন করলে বাচ্চাদের ভাল লাগে।বাজারে বাচ্চাদের জন্য সুন্দর সুন্দর গেঞ্জি পাওয়া যায় যা বাচ্চাদের জন্য অনেক আরামদায়ক।তাহলে চলুন আমরা আরামদায়ক পোশাকের সঙ্গে গরমটাকে উপভোগ করি আনন্দের সঙ্গে। আবহাওয়ার সঙ্গে মানিয়ে চলতে পারার আনন্দয় অন্য রকম।

ছবি: গুগল

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন amar@pranerbangla.com