কাল তীরে ভিড়বে কি টাইগারদের স্বপ্নের তরী

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আহসান শামীমঃ কার্ডিফে পৌঁছেছে বাংলাদেশ দল। তিন ঘন্টার পথ যেতে সময় লেগেছে পাঁচ ঘন্টা । প্রচন্ড ট্রাফিক জ্যামে দুই ঘন্টা বসে থাকতে হয়েছিল টাইগারদের। কনকনে ঠান্ডা আর বাতাসে কাঁপছে খেলোয়াড়া  টাইগারদের মাঝে ম্যাচ জয়ের প্রত্যায় দৃঢ়। শুক্রবারের ম্যাচ নিয়ে চলছে দারুন আলোচনা বিশ্ব ক্রিকেটের সাবেক তারকা আর ভক্তদের মাঝে। কার্ডিফেও বাংলাদেশি সমর্থকদের মাঠে দেখতে চান মাশরাফি। বাংলাদেশ দলের সমর্থকরা ইতিমধ্যেই আইসিসির নজর কেড়েছে। টাইগার সমর্থকদের উপস্থিতিতে উচ্ছ্বসিত আইসিসি। কার্ডিফে মাঠ যে টাইগার সমর্থকে ভরপুর থাকবে সেটা বলার অপেক্ষা রাখে না।

নিউজিল্যান্ড ম্যাচ জিতেই বাংলাদেশ তীরে ভেড়াতে চায় স্বপ্নের তরী। আগের দুটো ম্যাচ থেকে যদিও প্রাপ্তি সামান্য, তবু স্বপ্ন দেখার সাহস পাচ্ছে দল। প্রতিপক্ষ যখন নিউজিল্যান্ড। জিম্বাবুয়ের পর ওয়ানডেতে নিউজিল্যান্ডকেই সবচেয়ে বেশি বার হারিয়েছে বাংলাদেশ, ত্রিদেশীয় সিরিজে আয়ারল্যান্ডে, নিউজিল্যান্ডর বিপক্ষে বাংলাদেশের সবশেষ জয়।

প্রিয় প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ডকে হারানোর মনস্তাত্ত্বিক দিক দারুণভাবে তুলে ধরলেন সাকিব আল হাসান। “আমরা ওদের সঙ্গে অনেক খেলছি। অনেক জিতেছি। এরকম প্রতিপক্ষ হলে মানসিক প্রস্তুতি বলেন বা সবকিছু, সবদিক থেকে একটা অভ্যস্ত ভাব থাকে।” সাকিব বলেন ,“এই যেমন, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেললাম ৬ বছর পর। ৪-৫ জন ছাড়া বেশিরভাগ ক্রিকেটারই খেলে নাই ওদের বিপক্ষে। আমি মনে করতে পারি, প্রথমবার ওদের বিপক্ষে খেলার সময় অনুভূতি কেমন, কিন্ত নতুনদের জন্য কঠিন ছিল। কিন্তু নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে অন্তত সেটি হবে না।” নিউজিল্যান্ডের তারকা স্টাইরিস মনে করেন ‘বাংলাদেশেই সেমিতে যাবে,আর তাদের মুখোমুখি হবে ভারত।’ নিউজিল্যান্ডর কিংবদন্তি ক্রিকেটার ফ্লেমিংয়ের বিশ্বাস, ‘বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়াবে নিউজিল্যান্ডর বিপক্ষে।

কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেন্সের নাম শুনলেই বাংলাদেশি ক্রিকেটভক্তদের স্মৃতির মণিকোঠায় ২০০৫ সালে বাংলাদেশের অস্ট্রেলিয়া বধের দৃশ্য ভেসে উঠাটাই স্বাভাবিক। অস্ট্রেলিয়াকে একমাত্র ওয়ানডে ম্যাচে হারানোর দিনে ওই ম্যাচে বাংলাদেশ  জয় পায় ৫ উইকেটে। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ঐতিহাসিক সেই জয়ের স্মৃতিতে এখন মরচে পড়ে গেছে।১১ বছর পর আবারও কার্ডিফে বাংলাদেশ। যদিও মাশরাফি বাদে বর্তমান দলের কেউই খেলেননি ওই ম্যাচে।

এতসব পরিসংখ্যানে গা ভাসাতে চান না ওপেনার তামিম । তিনি মনে করেন বাংলাদেশ শক্তিশালী দল। ‘দুই-একজন রান পেলেই ভয়ঙ্কর হয়ে উঠবে বাংলাদেশ’। চেস্ট গার্ড না পরে অস্টেলিয়ার বিপক্ষে চোটের কবলে পড়া তামিম মনে করেন নিউজিল্যান্ড এবার পুরো শক্তি নিয়ে মাঠে নেমেছে । এরকম শক্তিশালী নিউজিল্যান্ডকে  ৯ জুন প্রথম মোকাবিলা করবে বাংলাদেশ যখন দু’দলই জয়ের জন্য মরিয়া থাকবে ।

অবশ্য নিউজিল্যান্ডর বিপক্ষে ম্যাচে পরাজয় ছাড়া বৃষ্টির জন্য পরিত্যক্ত হলেও এগিয়ে থাকবে বাংলাদেশ রান রেটে ।

১০ জুন অজিদের বিপক্ষে ইংলিশদের জয় একমাত্র তখন বাংলাদেশকে সেমি ফাইনাল খেলার সুযোগ করে দেবে । আবশ্য ইংলিশদের বিপক্ষে ম্যাচ জিতে বাংলাদেশের সেমির স্বপ্ন ধুলিস্যাৎ করতে চায় অষ্ট্রেলিয়া । মিচেল স্টার্ক জানিয়ে দিলেন, ‘‌যখনই নকআউট পরিস্থিতি হয়, তখনই আমাদের খেলা খুলে যায়। নিজেদের সেরাটা উজাড় করে দিই। আর এই টুর্নামেন্টে আমাদের রেকর্ড বেশ ভাল। তাই দলের সবাই এখন মুখিয়ে আছে।’‌

ছবি: গুগল

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন amar@pranerbangla.com