ওয়ানপ্লাস ফাইভ: কেনার পূর্বে যা আপনার জানা প্রয়োজন

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ওয়ানপ্লাস স্মার্টফোন ব্র্যান্ড ইতিমধ্যে ভক্তদের মাঝে খুবই ভাল স্থান অর্জন করে নিয়েছে তাদের পূর্বের ফোন গুলোর মাধ্যমে। স্মার্টফোনের বাজারে আসা এদের ১ম ডিভাইস হল OnePlus 1, যেটিকে তখন এই ব্র্যান্ডের ফ্লাগশিপ ডিভাইস বলে মনে করা হত। এরপরে বাজারে আসল OnePlus X এবং OnePlus 2। কিন্তু OnePlus 3T অসাধারন একটি স্মার্টফোন ছিল এমনকি OnePlsu 3 ও সবার ১০টি পছন্দের তালিকায় স্থান করে নিয়েছিল। তারপর গুজব শুরু হয় আলোচিত OnePlus 5 নিয়ে। অনেক গুজবের পর অবশেষে ওয়ানপ্লাস ৫ (OnePlus 5) অফিশিয়াল ভাবে রিলিজ হয়ে গেল ২৭শে জুন, ২০১৭ তে। এই ফোনটির স্পেসিফিকেশন এবং নতুন কি কি ফিচার থাকছে এসব নিয়েই আজকের এই লেখা।

এক নজরে দেখে নিন OnePlus 5 এর স্পেসিফিকেশনঃ
নেটওয়ার্ক: 2G / 3G / 4G
কালারঃ Midnight Black, Gunmetal,
ডাইমেনশনঃ 154.20 x 74.10 x 7.30 mm
ওজনঃ 153 gram
ডিসপ্লেঃ 5.5 inches Display, Corning Gorilla Glass 5
রেজ্যুলেশনঃ 1920 x 11080 pixels
র্যামঃ 6/8GB RAM
স্টোরেজঃ Internal Memory 64GB with 6GB RAM & 128GB with 8GB RAM
ক্যামেরাঃ Dual 16MP, f/1.7, 24mm, OIS, Autofocus, LED flash
ভিডিওঃ Yes, 2160p @30fps, 1080p @60fps
সিস্টেমঃ Android OS OS v7.1.1 Nouga
চিপসেটঃ Qualcomm Snapdragon 835
প্রসেসরঃ 2.45GHz Octa-core Processor
জিপিওঃ Adreno 540
সেন্সরঃ Fingerprint, Accelerometer, Proximity, Gyroscope, Compass
ফিচারসঃ Fast Battery Charging 60% in 30 Min (Dash Charge Support)
ব্যাটারীঃ Non-removable Li-po 3300mAh,Fast Battery Charging

এবার আসি মূল আলোচনায়ঃ
বিল্ড কোয়ালিটি/ডিজাইনঃ OnePlus 5 সম্পূর্ণ মেটাল বডির ইউনিক ডিজাইন। এর পুরুত্ব অনেক কম ৭.২৫ মিমি, ফলে ওজন ও অনেক কম। কিন্তু অনেকের মাঝে বিতর্ক চলছে এই নিয়ে যে OnePlus 5 দেখতে Iphone 7 plus এর হুবুহু নকল। কারন ডুয়েল ক্যামেরা, ফ্ল্যাশ এবং নেটওয়ার্ক ব্যান্ডের অবস্থান Iphone 7 plus এর সাথে মিলে যায়। কিন্তু ফোন দুইটিকে পাশাপাশি রাখলে আসল পার্থক্য বুঝতে পারা যাবে। কারন OnePlus 5 এর গঠন অনেকটা গোলাকার কর্নার গুলো। কিন্তু এই OnePlus 5 একদমই মিলে যায় OPPO R11 এর সাথে। শুধু ডিজাইনেই সীমাবদ্ধ নয়, ক্যামেরা কোয়ালিটি এর ক্ষেত্রেও OPPO R11 এর সাথে মিলে যায় OnePlus 5। সাইড এলার্ট বাটন (যা শুধু স্লাইড করার যায়) OnePlsu 3T এবং OnePlsu 3 এর মত OnePlus 5 এ আবার দেওয়া হয়েছে। কিন্তু কোন ওয়াটার রেজিস্ট্যান্স বা ডাস্ট রেজিস্ট্যান্স প্রুফ এর কথা উল্লেখ নেই, যা ২০১৭ এর ফ্ল্যাগশিপ ফোনের জন্য খুবই হতাশাজনক। কিন্তু এর ভাইব্রেশন মোটরে পরিবর্তন আনা হয়েছে। যা অনেক শক্তিশালী এবং সাইলেন্ট। অর্থাৎ ভাইব্রেশন তুলনামুলক বেশি পাওয়া যাবে কিন্তু ভাইব্রেশনের শব্দ কম হবে।
ডিসপ্লেঃ পূর্বের ভার্সনের মত OnePlus 5 এ ৫.৫” ইঞ্চি এর অপটিক অ্যামুলেড এবং ১০৮০পি রেজ্যুলেশনের ফুল HD ডিসপ্লে রয়েছে। যেহেতু ২০১৭ এর ফ্ল্যাগশিপ ফোন বলে কথা, তাই সবাই আশা করতেই পারে যে ফোনটিতে QHD (Quad HD) ডিসপ্লে এর। যদিও সাধারন ব্যবহারে QHD এর অভাব বুঝা যায় না। কিন্তু যখনই ভিআর (VR) ব্যবহার করা হবে তখন এই QHD এর অভাব টা অনুভূত হবে। ডিসপ্লে এর নিচে ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার রয়েছে হোম বাটনের সাথে। এই বাটনটি স্ক্রাচপ্রুফ।
পারফরম্যান্সঃ OnePlus 5 এর সবথেকে আকর্ষণীয় দিক হল এর পারফরম্যান্স। এই ফোনে Snapdragon 835 এর সবথেকে আধুনিক প্রসেসর রয়েছে। আর র্যাম হল ৬/৮ জিবি DDR 4x এর। যা বর্তমান সময়ের সবথেকে উন্নত প্রযুক্তির র্যাম। সাথে যে মেমোরী ব্যবহার করা হয়েছে তা হল FS 2.1 ভার্সনের এবং এটিও উন্নত প্রযুক্তির স্টোরেজ। OnePlsu 3T এর মত এই OnePlus 5 এ রয়েছে স্টক Android এর সুবিধা। তাই এক কথায় বলা যায় অসাধারন পারফরমেন্স এবং এই দিক দিয়ে কোন সন্দেহ বা প্রশ্ন থাকবে না ফ্ল্যাগশিপ ফোন OnePlus 5 এর উপর।
ক্যামেরাঃ এই OnePlus 5 এর অন্য একটি আকর্ষণীয় দিক হল এর ক্যামেরা। যদিও এর ক্যামেরা কনফিগারেশন সেটআপ সম্পূর্ণভাবে মিলে যায় কিছুদিন আগে রিলিজ পাওয়া OPPO R11 এর সাথে। ব্যাক ক্যামেরায় রয়েছে ১৬+২০ মেগাপিক্সাল এর ডুয়েল সেন্সর। ১৬ মেগাপিক্সালের এর সেন্সরে রয়েছে f/১.৭ এর এপারচার যা Sony IMX 398 এর সেন্সর। পিক্সেল সাইজ ১.২ মাইক্রোন। এর সাথে ২০ মেগাপিক্সালের এর সেন্সরে রয়েছে f/২.৬ এর এপারচার যা Sony IMX 350 এর সেন্সর। পিক্সেল সাইজ ১.০ মাইক্রোন। এর সাহায্যে ঠিক Iphone 7 plus এবং OPPO R11 বা Xiaomi MI6 এর মত ২X ঝুম এর সাথে আর্টিফিসিয়াল বুকে ইফেক্ট (Blur effect) পাওয়া যাবে ছবি গুলোতে।
কোন Optical Image Stabilization নেই। পরিবর্তে রয়েছে Electrical Image Stabilization। সেটাও শুধুমাতে ১০৮০পি ভিডিওতে। তাই 4k ভিডিও রেকর্ডিং এর সময় পারফরম্যান্স আশানুরুপ ভাল পাওয়া যাবে না।
ফ্রন্ট ক্যামেরাতে এবার Electrical Image Stabilization দেওয়া হয়েছে। তাই এক কথায় বলতে হয়, ক্যামেরা পারফরম্যান্স সব মিলিয়ে এই ফ্ল্যাগশিপ ডিভাইসটিকে অন্যতম উচ্চতায় নিয়ে গেছে।
ব্যাটারী ব্যাকয়াপঃ ৩৩০০ mAh এর ব্যাটারী রয়েছে ফোনটির সাথে। সাথে আছে ড্যাশ চার্জ বা ফার্স্ট চার্জিং এর সুবিধা। এর ফলে মাত্র আধা ঘন্টা চার্জেই সারাদিন ফোনটিকে চালানোর মত ব্যটারী ব্যাকআপ পাওয়া যাবে। OnePlsu 3T এর মতই ভাল মানের ব্যাটারী ব্যাকআপ পাওয়া যাবে বলে আশা করা যাচ্ছে। যদিও OnePlsu 3T এর ৩৪০০ mAh এর ব্যাটারীর পরিবর্তে OnePlus 5 এ ৩৩০০ mAh ব্যাটারী ব্যাকআপ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু পারফরম্যান্সে কোন ঘাটতি হবে না, কারন এই ফ্ল্যাগশিপ ফোনে রয়েছে উন্নত মানের প্রসেসর।
সফটওয়্যার: OnePlus 5 ফোনটিতে সফটওয়ার হিসেবে রয়েছে Oxygen OS এবং Android 7.1। যা একদম লেটেস্ট। এর সাথে রয়েছে কিছু অতিরিক্ত ফিচার। যেমন এতে রয়েছে বহুল আলোচিত Scrolling Screen Shot এর অপশন। অর্থাৎ অনেক বড় টেক্সট বা কনভার্সেশনের Screen Shot একবারেই নেওয়া যাবে।

সবশেষে বলতে হয়, ফোনটির হার্ডওয়ার এবং সফটওয়ার এ ব্যবহার করা হয়েছে অত্যাধুনিক টেকনোলজি। সেদিক থেকে ফোনটিকে বলা যায় ওয়ানপ্লাস ব্র্যান্ডের ফ্ল্যাগশিপ ফোন। কিন্তু ২০১৭ তে এসে আরও কিছু প্রত্যাশা ছিল ফোনটি থেকে। যেমন Quad HD ডিসপ্লে, water or Dust resistance Proof এর ঘাটতি। আবার Build Quality ও Iphone 7 plus এবং OPPO R11 এর মত। ইউনিক ডিজাইনের নয় এটি। আবার অন্যভাবে বলা যায় OnePlus 5 ফোনটি এর পূর্ববর্তী OnePlsu 3 এবং OnePlsu 3T এর থেকে অল্প পরিমানের আপডেটেড ভার্সন।

ওয়ানপ্লাস ফাইভ ১ বছর সার্ভিসিং ওয়ারেন্টি সহ পাওয়া যাচ্ছে অ্যাকুয়া গ্যাজেটে (https://www.facebook.com/aquagadget).

সাইফ তনয় (টেক ব্লগার)  
ছবিঃ গুগল

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন amar@pranerbangla.com