একদিন আমিও পারুম

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আশিকুজ্জামান টুলু, মিউজিশিয়ান

ফেইসবুক এর গরম আড্ডা চালাতে পারেন প্রাণের বাংলার পাতায়। আমারা তো চাই আপনারা সকাল সন্ধ্যা তুমুল তর্কে ভরিয়ে তুলুন আমাদের ফেইসবুক বিভাগ । আমারা এই বিভাগে ফেইসবুক এ প্রকাশিত বিভিন্ন আলোচিত পোস্ট শেয়ার করবো । আপানারাও সরাসরি লিখতে পারেন এই বিভাগে। প্রকাশ করতে পারেন আপনাদের তীব্র প্রতিক্রিয়া।

জীবনে যেকোনো বিষয়ে শিক্ষা নেয়া বিশাল একটা ব্যাপার আমার কাছে । আজ অবধি যা যা আমি শিখছি, একটাও বৃথা যায় নাই । পুরান ঢাকায় আমাগো ছোটবেলায় আলুবাজার সিদ্দিকবাজারে অনেক জুতার দোকান ছিল, সারাদিন দাড়ায় দাড়ায় ওগো জুতা বানানো দেখতাম, এখন জুতা ছিড়া গেলে কমসেকম ট্রাই করতে পারি ঠিক করার । বিদেশ বিভূঁইয়ে জুতা ছিড়লে শেষ, ওইটা ফালায় দিতে হয়, মাগার আমার জুতা আমি ফালাই না, মেরামত কইরা নেই যেহেতু আমি জানি ক্যামনে মেরামত করে । 
***
ছোটকালে ৪টা বলবিয়ারিং আর ২ ফিট বাই ১ ফিট কাঠের টুকরা দিয়া গাড়ি বানায়া সারা বারান্দাময় চালাইয়া বেড়াইসি, রাস্তায় চাক্কা চালাইসি, ছাদে ঘুড়ি উড়াইসি, টিপ্পি (মারবেল) খেলসি, রিক্সার পিছনে উঠসি, ঠোংগার দোকানে ঠোংগা বানানো দেখসি, চারা দিয়া ক্যামনে কুত কুত খেলে সেইটা দেখসি, সিগারেটের প্যাকেট দিয়া ক্যামনে জুয়া খেলে সেইটা দেখসি, কটকটি খাইসি এবং বানানো শিখসি, (এখনও বানায়া খাওয়াইতে পারুম, স্পষ্ট মনে আছে ক্যামনে বানায় এবং কি কি লাগে), শরীর চর্চা কেন্দ্রে ব্যাম করা দাড়াইয়া দাড়াইয়া দেখসি, ব্যান্ড পার্টীর দোকানে বিয়াতে বাজাইতে যাওয়ার আগে ওগো প্র্যাকটিস দেখসি, ছুরিটোলা প্রাইমারি স্কুলের পুস্কুনিতে পোলাপানগো পানিতে ডাইভ দিতে দেখসি, দরিদ্রতা দেখসি, অভাব দেখসি, সচ্ছলতা দেখসি, প্রেম দেখসি, বিচ্ছেদ দেখসি, প্রেম করসি, ছ্যাক খাইসি, ছ্যাক দিসি, সাইকেল চালাইসি, হোন্ডা চালাইসি, গাড়ি চালাইসি, বন্ধুদের রংবাজি করতে দেখসি, ওগো মাইরপিট করতে দেখসি, নিজেও মাইরপিটে অংশগ্রহণ করসি, আর্মস দেখসি, বেঈমানি দেখসি, গুটিবাজি দেখসি, পুরান ঢাকার তাতি বাজারের বিউটি বোর্ডিঙে খাইসি, নারিন্দার ঢালের বিরানি খাইসি, পাতলাখান লেনের বিট লবন আর সালাদ দিয়া শিঙ্গাড়া খাইসি, হাকিম ভাইয়ের চায়ের দোকানে চা খাইসি, ডাসের নাস্তা খাইসি, টি এস সির সোলেমানের ক্যান্টিনে ৩ টাকার বিরানি সঙ্গে দুই টুকরা মাংস খাইসি, মহসিন হলে থাকসি, হলের ডাইল খাইসি, ঢাকা কলেজের ইনটারন্যাশনাল হোস্টেলে থাকসি, গ্রামে গিয়া পুকুরে মাছ ধরসি, নদিতে ঝাপাইসি, গ্রামে মাসের পর মাস থাকসি, গাছের জাম্বুরা দিয়া ফুটবল খেলসি, কলা গাছ দিয়া ভ্যালা বানায়া বন্যার পানিতে চালাইসি, স্বাধীনতা সংগ্রাম দেখসি, ঢাকা ছাইড়া পালাইসি, শরণার্থী হইয়া গ্রামের পর গ্রাম মাইলের পর মাইল হাইটা পালাইয়া গেসি আর্মির ভয়ে । আবার ঢাকার এখনকার মডার্ন পোলাপান দেখসি, ক্যামনে আধো আধো ইংরেজি মিলায়া বাংলা কথা কইতে হয় সেইটা দেখসি, ক্যামনে দেখাইতে হয় যে আমার বাংলা বলতে কষ্ট হচ্ছে সেইটা দেখসি, বাংলা কইতে গিয়া মাঝে মাঝে but, also, bro, dude ইত্যাদি কইয়া ক্যামনে ইংলিশ এফেক্ট আনে পোলাপান, তাও দেখসি ।
***
অনেক সিনেমা দেখসি, ব্যান্ড শো দেখসি, ব্যান্ড করসি । গান করসি । মনের মধ্যে লুক্কায়িত যে বাসনাটা অনেকদিন ধইরা গোপনে আছে, কেন যেনো মনে হয় আমি পারমু, যেহেতু এতো কিছু দেখসি, যেহেতু একটা জীবনবোধের সৃষ্টি হইসে মনে, সিনেমা আমি ডিরেকশন দিতে পারমু । একদিন ইন শা আল্লাহ আমি ডিরেক্টর হমু।

ছবি: গুগল

 

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন amar@pranerbangla.com