এই গরমে কি খাই…

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নয়না আফরোজ

এই গরমে খাওয়া-দাওয়া কিছুতেই আরাম পাওয়া যায় না। এসময় রান্নাতে যদি একটু সময় উপযোগী বৈচিত্র আনা যায় তাহলে খেয়েও স্বস্থি পাওয়া যাবে। তাই এমনি কিছু রেসিপি আপনাদের জন্য দিয়েছেন নয়না আফরোজ। গরমে এসব রান্না আপনিও তৈরি করতে পারেন।

 

ঝিঙে পোস্ত

উপকরণ

ঝিঙে পোস্ত

ঝিঙে                            – ১ কেজি ( ডুমো কাটা)

পোস্তবাটা                     – ২০ গ্রাম

হলুদ                             – ১ চা চামচ

কাঁচামরিচ                    – ৬টা

তেল                             – ১ টেবিল চামচ

লবন                             – স্বাদমত

চিনি                             – ১ চা চামচ

প্রণালী

তেল গরম করে ৪ টা কাঁচামরিচ দিন। এর উপর লবন, হলুদ দিন।একটু কষিয়ে ঝিঙে দিন। ঝিঙের পানি বের হয়ে ঝিঙে নরম হয়ে গেলে পোস্তবাটা দিয়ে দেবেন। নাড়াচাড়া করে মিশিয়ে ঢেকে দিন।পোস্ত ও ঝিঙে সেদ্ধ হয়ে আসলে চিনি দিন। ঘন-ঘন নেড়ে মাখামাখা হলে কাঁচামরিচ দিয়ে নামিয়ে নিন।

সজনে ডাটায় কুমড়ো বড়ি

উপকরণ

সজনে ডাটা                  – ১/২ কেজি

সজনে ডাটায় কুমড়ো বড়ি

কুমড়ো বড়ি                  – ৮টা

সরিষা বাটা                   – ১ টেবিল চামচ

হলুদ গুঁড়ো                   – ১ চা চামচ

মরিচ গুঁড়ো                  – ১ চা চামচ

জিরা গুঁড়ো                   – ১ চা চামচ

ধনে গুঁড়ো                    – ১ চা চামচ

আদা রশুন বাটা            – ১ চা চামচ

পেয়াজ কুচি                 – ১-১/২ টেবিল চামচ

তেল                             – ২ টেবিল চামচ

লবন                             – স্বাদমত

প্রণালী

সজনে ডাটা ছিলে ৬ সেঃ মিঃ লম্বা করে কেটে রাখুন। কুমড়ো বড়ি ভেজে রাখুন।কড়াইতে তেল গরম করে পিয়াজ কুঁচি ভাজুন। নরম হলে এক এক করে সব মশলা দিয়ে কষান। সজনে ডাটা দিন, সরিষা বাটা দিন। কিছুক্ষণ নেড়ে পানি দিন। সজনে ডাটা সেদ্ধ হয়ে আসলে কুমড়ো বড়ি দিন। সামান্য ঝোল থাকা অবস্থায় নামিয়ে নিন।

লাউ করলা দিয়ে মুগডাল

মুগডাল                        – ৩০০ গ্রাম (হাল্কা ভাজা)

লাউ করলা দিয়ে মুগডাল

লাউ                             – ১২ টুকরো ( ডুমো কাটা)

করলা                           – ১ টি (মাঝারি)

আদা বাটা                    – ১ চা চামচ

জিরা                            – ১/২ চা চামচ

তেজপাতা                    – ২ টি

শুকনা মরিচ                 – ৪ টি

লবন/ চিনি                    – স্বাদমত

প্রণালী

মুগডাল হালকা ভেজে গরম পানিতে ভিজিয়ে রাখুন, করলা গোল করে কেটে ডুবো তেলে ভেজে তুলুন। তেল ঘি মিশিয়ে গরম করে তাতে জিরে, শুকনো মরিচ, তেজপাতা দিয়ে একটু রঙ ধরলে আদা বাটা দিন। এর উপর পানি ঝরানো ডাল দিন , লবন দিন। গরম পানি দিয়ে ঢেকে দিন। একটু পরে লাউ দিন। ডাল ও লাউ দুইই গলা-গলা হয়ে আসলে ভেজে রাখা  করলা দিন। সামান্য চিনি দিয়ে নামিয়ে নিন।

আমকাতলা

উপকরণ

আম-কাতলা

কাতলা মাছ                  – ৪ টুকরা (লবন হলুদ মাখিয়ে হাল্কা ভাজা)

পেয়াজ কুঁচি                 – ১ কাপ

হলুদ গুঁড়ো                   – ১ চা চামচ

মরিচ গুঁড়ো                  – ১ চা চামচ

জিরা গুঁড়ো                   – ১ চা চামচ

কাঁচা আম                     – ২টা

তিল বাটা                      – ১ চা চামচ

সরিষা বাটা                   – ১ চা চামচ

কাঁচা মরিচ                    – ৪ টা

লবন                             – স্বাদমত

চিনি                             – ১ চিমটি (ইচ্ছানুসরে)

প্রণালী

সরিষার তেল গরম করে তাতে পেয়াজ ও রশুন কুঁচি ভেজে হলুদ, মরিচ ও জিরা গুড়া দিন। কষিয়ে গরম পানি দিন। ফুটে উঠলে কাঁচা আম দিন। আম একটু নরম হলে মাছ দিয়ে ঢেকে দিন। ৫ মিনিট পর তিল ও সরিষা বাটা একসাথে মিশিয়ে দিয়ে দিন। ঝোলটা ফুটে উঠলে চিনি (ইচ্ছানুসরে) আর কাঁচা মরিচ দিয়ে নামিয়ে নিন।

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন amar@pranerbangla.com