এই আনন্দে, এই বিষাদে

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আহসান শামীমঃ শ্রীলংকার বিরুদ্ধে শেষ টি-টুয়েন্টিতে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ার সময় অধিনায়ক মাশরাফি আঙুল দিয়ে চোখের তলায় জমে ওঠা ঘাম মুছলেন, নাকি লুকনো অশ্রুবিন্দু? এ প্রশ্নের জবাব একমাত্র মাশরাফিই দিতে পারবেন। তবে এতো আনন্দের মাঝে বিষাদের ছায়্টা অধিনায়কের মুখ ছুঁয়েই থাকলো।

মাশরাফির এই বিদায় ঘোষণার বিষাদ বাংলাদেশের লক্ষ লক্ষ ক্রিকেট ভক্তদেরও স্পর্শ করলো গভীরভাবে।

টাইগার বাহিনী অধিনায়ক মাশরাফিকে শেষ টি টুয়েন্টিতে জয় উপহার দেওয়ার প্রতিজ্ঞা রক্ষা করলো ২ ওভার বাকী থাকতে ৪৫ রানে শক্তিশালী শ্রীলংকাকে পরাজিত করে ।  ম্যাচ সেরা হয়েছেন টাইগার দলের ভবিষ্যত অধিনায়ক সাকিব আল হাসান । স্মাট প্লেয়ার ম্যান অফ দ্য ম্যাচ মুস্তাফিজুর রহমান । সর্বোচ্চ ছয় মেরে সৌম্য সরকারও পুরুস্কার লাভ করেন। প্লেয়ার অব দ্য সিরিজের পুরুস্কারও পান সৌম্য সরকার আর ম্যান অব দ্য সিরিজের পুরুস্কার পান মালিঙ্গা ।

সিরিজ রক্ষা ছাড়াও আজকের ম্যাচটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ছিলো বাংলাদেশের জন্য।টি-টুয়েন্টিকে বিদায় জানিয়েছেন মাশরাফি। তাই সতীর্থরা খুব করে চাইছেন এই ম্যাচটা জিততে। তামিমের ব্যাক ইঞ্জুরি আর গত ম্যাচে অধিক রান দেওয়ার জন্য দলে পরিবর্তন । মিরাজের অভিষেক তামিম জায়গায়, ওপেনার ইমরুল । টসে জিতে ব্যাটিংএ বাংলাদেশ। শুরুতে ওপেনিং জুটির আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ে পাওয়ার প্লে- পঞ্চম ওভারেই ৫৬ রান তোলে বাংলাদেশ দল। উইকেটের আশায় লঙ্কান কাপ্তান থারাঙ্গা মালিঙ্গার হাতে বল তুলে দেন। ব্যাটিং পাওয়ারপ্লে শেষে বাংলাদেশের স্কোর দাঁড়ায় ৬৮ রান। দলকে শক্ত ভিতের উপর দাঁড় করে দিয়ে সপ্তম ওভারে গুনারাত্নার কাটারে পরাস্ত হয়ে রিটার্ন ক্যাচে ১৭ বলে ৩৪ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে আউট সৌম্য ।দলের স্কোর তখন এক উইকেটে ৭২ রান। ঠিক পরের ওভারে প্রসন্নর বলে নন স্ট্রাইকে থাকা ইমরুল অহেতুক দ্রুত রান নিতে গেলে ২৫ বলে ৩৬ রানের রান আউট হয়ে সম্ভাবনাময় ইনিংসের মৃত্যু ঘটে। দলীয় ৭৯ রানে দুই ওপেনারকে হারালেও রানের চাকা সচল রেখে দশম ওভারে দলের স্কোর শতকের কোঠা পার করেন সাকিব ও সাব্বির। ইনিংসের ১৩তম ওভারে বাংলাদেশ ক্যাম্পে আঘাত হানেন সঞ্জয়া। ১৮ বলে ১৯ রানের ইনিংস খেলে দলীয় ১২৪ রানে সরাসরি বোল্ড হয়ে ফিরে যান সাব্বির রহমান।সাব্বিরের বিদায়ে বেশীক্ষণ স্থায়ী হয়নি সাকিবের ইনিংস। কুলাসেকেরার ১৬তম ওভারে কয়েকদফা ডট বলের পর স্কুপ শট খেলতে গিয়ে বোল্ড হন তিনি। ৩১ বলে ৩৮ রান যোগ করে দলীয় ১৩৯ রানে আউট হন সাকিব।

মোসাদ্দেক ১৭ রান যোগ করে আউট হলেও মুশফিক ও মাহমুদুল্লাহর ব্যাটে এগোতে থাকে বাংলাদেশ।  ১৯তম ওভারে চ্যাম্পিয়ন মালিঙ্গা হ্যাট্রিক স্লোয়ার ইয়র্কারে মুশফিককে ১৫ রানে ও মাশরাফিকে শুন্য রানে বোল্ড করেন তিনি। হ্যাট্রিক বলে স্লোয়ার বলেই মিরাজকে লেগ বিফরের ফাঁদে ফেলে পঞ্চম বোলার হিসেবে টি-টুয়েন্টি হ্যাট্রিক তুলে নেন মালিঙ্গা।

জয়ের জন্য ১৭৭ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে প্রথম বলেই কুশল পেরেরা  সাকিবকে স্কয়ার লেগ বাউন্ডারিতে পাঠিয়ে রানের খাতা খোলেন তিনি।  ঠিক পরের বলেই পয়েন্টে কাট করতে গিয়ে বোল্ড হন পেরেরা।কিন্তু ঠিক পরের বলেই পয়েন্টে কাট করতে গিয়ে বোল্ড হন পেরেরা। ইনিংসের তৃতীয় ওভারে বল করতে এসে আরেকবার লঙ্কান ক্যাম্পে আঘাত হানেন সাকিব। আরেক ওপেনার দিলশান মুনাবিরাকে রিয়াদের ক্যাচে পরিনত করেন তিনি। দলের স্কোর তখন ১৯ রানে দুই উইকেট। চাপের মুখে থাকা স্বাগতিকদের আরেকবার ধাক্কা দেয় মাহমুদুল্লাহর আঘাত। ইনিংসের পঞ্চম ওভারেই রিয়াদকে তুলে মারতে গিয়ে মিরাজের হাতে ধরা পড়েন ২৩ রান করা থারাঙ্গা।ঠিক পরের ওভার পর পর দুই বলে মুস্তাফিজের দুই উইকেট, ফিরলেন গুনারত্নে ও সিরিবর্ধনে । হ্যাটট্রিকের সুযোগ পেলেও মুস্তাফিজ সেই সুযোগ কাজে লাগাতে ব্যার্থ হন । পাওয়ার প্লেতে ৫ উইকেট হারিয়ে বিপর্যস্থ শ্রীলংকাকে থিসারা পেরেরা, জুটি শক্ত হাতে হাল ধরেন । সাকিব ৩য় স্পেলের ওভারের শেষ বলে ২৩ বলে ২৭ রান করা পেরেরাকে আউট করে ৫৬ বলের জুটি ভাঙ্গেন । শ্রীলংকার দলীয় রান তখন ১৩ ওভারে ৯৮/৬ । সাকিব ৪ ওভারে ২৪ রান দিয়ে ৩ উইকেট দখল করেন। ক্যারিয়ারের শেষ ওভারে প্রসন্নর স্ট্যাম্প ভাঙ্গলেন মাশরাফি। আজ শ্রীলংকার প্রসন্নরও  ছিল টি টুয়েন্টির শেষ ম্যাচ । এসময় শ্রীলংকার দলীয় রান ১৬ ওভারে ১১৯/৭। দুইবার জীবন পাওয়া চামারা কাপুগেদারা  ৫০ রান করে মুস্তাফিজের বলে ক্যাচ আউট হন। চামারা কাপুগেদারা  টি টুয়েন্টির এটাই ছিল সর্বোচ্চ রান । মালিঙ্গাকে বোল্ড করে কাটার মাষ্টার মুস্তাফিজ ৪ ওভারে ২১ রান দিয়ে  ইন্জুরির পর সেরা বোলিং করেন। ১৮ ওভারে সাইফুদ্দিনের বলে রিয়াদের ক্যাচ শ্রীলংকার বিপক্ষে বাংলাদেশ ৪৫ রানের জয় তুলে নিয়ে টি টুয়েন্টি সিরিজও ড্র করলো।

ক্রিকেটের ইতিহাসে কোন দল এই প্রথম বিদেশের মাটিতে সবগুলো খেলায় ড্র ফলাফল নিয়ে ঘরে ফিরলো। এটাও বাংলাদেশের জন্য একটি রেকর্ড।

ছবিঃ ইএসপিএন

 

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন amar@pranerbangla.com