আমার একটি গোপন নাম ‘বন্ড’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ফেইসবুক এর গরম আড্ডা চালাতে পারেন প্রাণের বাংলার পাতায়। আমারা তো চাই আপনারা সকাল সন্ধ্যা তুমুল তর্কে ভরিয়ে তুলুন আমাদের ফেইসবুক বিভাগ । আমারা এই বিভাগে ফেইসবুক এ প্রকাশিত বিভিন্ন আলোচিত পোস্ট শেয়ার করবো । আপানারাও সরাসরি লিখতে পারেন এই বিভাগে । প্রকাশ করতে পারেন আপনাদের তীব্র প্রতিক্রিয়া।

শাওনেওয়াজ কাকলী

১৭ বছর ধরে প্রাণ আমাকে আজও আদর করে এই নামে ডাকে। এই ডাকের সঙ্গে অনেক ছোট ছোট গল্প আছে।

দলবেঁধে মধুমিতা হলে গেলাম 007 James Bond দেখতে- আমি,প্রাণ, দিনা,তারানা,শান্তাসহ আরও কেউ কেউ…,ওরা আমাকে পচাতে খুব ভালোবাসতো তখন, আমিও রেগে যেতাম অনেক ক্ষেত্রেই।
প্রাণ আমার মাথা ধরে নাড়িয়ে মুখে খট খট শব্দ করে প্রায় বলতো” দেখছিস তোর কত বুদ্ধি। ঝাঁকা দিলে নড়ে। সব যেন প্রকাণ্ড হাসিতে আমাকে পচাতে মজা পেতো।
সেদিন হল থেকে বেড়িয়ে আমিও বোকার মত বলে ফেললাম, ‘ওফফফ কি বুদ্ধি নায়কের দেখছিস” সঙ্গে সঙ্গে প্রাণ আমার মাথায় ঝাঁকা দিয়ে সেই কাজটি আবার করল এবং তৎক্ষণাৎ বলে বসলো আমাদের “কালিবন্ড” কি চ-লা-ক ! (কাকলীর সংক্ষিপ্ত সম্পাদিত নাম) জেমস বন্ডের ছোট বোন।
সেই মুহুর্ত, সেই কথা,সেই বয়স আমাদের আনন্দের সব দরজা খুলে দিত একটুতেই, হেসেই লুটোপুটি খেতাম একজন আরেকজনের গায়ে পড়ে।
পরের দিন ক্লাসে যাওয়ার পর থেকে নামটি established হয়ে গেল।
বন্ধুদের দলে খাওয়া, ঘোরাফেরা, হিসাব-নিকাশ, কেনাকাটা, সাজুগুজু, নানান দিকে উপস্থিত বুদ্ধি রাখতাম বলে নাকি প্রাণ এই নামটি দিয়েছিল।
এলিফেন্ট রোডের অনেক Men tailor এর সাইনবোর্ডে রোজার মুর এর ছবি দেখতেই ওরা চিৎকার করে উঠতো- কালিবন্ড দেখ তোর ভাইয়ের ছবি। খেপাতে খেপাতে রোজার মুর কে ভাই মনে হতো। তারপর থেকে রোজার মুরের মত অন্যকোন জেমস বন্ড আর মন কাড়তে পারেনি আমি সহ আরও অনেকের কাছেই। একজন সত্যিকার জেমস বন্ড।
পৃথিবীতে বিরল যে কোন হিরো কোন নারীর কাছে স্বপ্ন পুরুষের পরিবর্তে ভাই হয়ে উঠেছিল। আজ তাঁর বিদায়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সেই সাদাকালো ফড়িংদিন গুলোর কথা মনে পড়ছে।
এরপর শুটিং এ, বাহিরে, বাসায় কাজের কেউ প্রথম এলে কিছুদিন পর থেকে শব্দটি খোঁজার চেস্টা করে। প্রান আমাকে চট করে কি বলে ডাকে ?
আমদের ড্রাইভার খলিল খুব লজ্জামাখা বলল একদিন -ভাইয়া আমি জানি আপনি আপুকে মন বইলা ডাকেন-। একজন মন আরেকজন প্রান। মনপ্রান !
আরে বোকা মন না বন্ড। চিনো তোমার আপুরে…জেমস বন্ডের ছোটবোন।
একবার খালা বলে বসলো; ” স্বামী বউরে বোন বলে কেন?
আমি; “খালা বোন না বন্ড…, বন্ড মানে বুদ্ধিমতি। দেখ শব্দ হয়- এগুলো বুদ্ধি নড়ে। আমি মাথা নেড়ে মুখে শব্দ করি বলি। এজন্য তোমার ছেলে এই নামে ডাকে। মাথার ভেতর খালি সিনেমা নড়ে, দেখছ কত সিনেমা।

 

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন amar@pranerbangla.com