অষ্ট্রেলিয় ক্রিকেটের খারাপ সময়

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আহসান শামীমঃ অষ্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট দলের অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ আর তার সঙ্গীরা হুমকি দিয়েছেন দাবী না মানলে আসন্ন বাংলাদেশ, ভারত সফর বাতিলের সঙ্গে ঘরের মাঠে মহা গুরুত্বপূর্ণ অ্যাশেজ সিরিজও তারা খেলবেন না । ক্রিকেটারদের বেতন-ভাতা ইস্যু নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই উত্তাল এক পরিস্থিতি বিরাজ করছে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটে। এমনকি ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার (সিএ) সঙ্গে নতুন করে চুক্তিও করেননি প্রায় ২৩০ জনের মতো ক্রিকেটার।এই নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে লিখেছেন স্টিভেন স্মিথ। তার ভাষায়, “আমি সকল ক্রিকেটারদের আহ্বান জানাচ্ছি, এটা আমাদের নিজেদের বক্তব্য তুলে ধরার সময়। আমরা সব ক্রিকেটারদের জন্য আমাদের রেভিনিউ শেয়ারিং মডেলের বাস্তবায়ন দেখতে চাই।”

তারপরও  অজি ক্রিকেটারদের মধ্যে বোর্ডের স্বার্থবিরোধী প্রথম চুক্তিটা করেছেন পেসার মিচেল স্টার্ক। ‘অডি’ ব্র্যান্ডের সাথে ব্যক্তিগত চুক্তিতে গিয়েছেন তিনি। নিজের টুইটার একাউন্টে এমন সংবাদ প্রকাশ করেছেন স্টার্ক নিজেই । উল্লেখ্য , ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে স্পন্সরশীপ চুক্তি আছে টয়োটা ব্র্যান্ডের। আর এই কোম্পানির সবচেয়ে বড় প্রতিদ্বন্দ্বী অডির সঙ্গেই চুক্তিতে গেলেন স্টার্ক। আর এই বিষয়টা সাড়া জাগিয়েছে অষ্ট্রেলিয় মিডিয়ায়। এরই মাঝে মিডিয়ার সামনে যুক্তি উপস্থাপন করেছেন স্টার্কের ব্যক্তিগত এজেন্ট। তিনি জানান, “স্টার্ক বোর্ডের বেতনভুক্ত খেলোয়াড় নন, তাই ব্যক্তিগত চুক্তি করতেই পারেন যেকোনো প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে।” চলমান অস্থিরতায় দ্রুত সমাধানে না আসলে স্টার্কের মতো বাকী ক্রিকেটাররাও বোর্ডের সঙ্গে চুক্তি থাকা কোম্পানির ‘সেরা’ প্রতিদ্বন্দ্বীদের সঙ্গে ব্যক্তিগত সম্পর্ক চুক্তি করবেন বলে বিশ্বাস সংশ্লিষ্ট মহলের। আর তখন পরিস্থিতি সামাল দেওয়া দায় হয়ে পরবে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার।

এদিকে অস্ট্রেলিয়া-বাংলাদেশ সিরিজ নিয়ে আশাবাদী সাবেক অজি অধিনায়ক মার্ক টেইলর । অস্ট্রেলিয়ান মিডিয়ায় দেশের হয়ে ১০৪ টেস্ট খেলা মার্ক টেইলর বলেছেন, ‘আমি বিশ্বাস করি আমরা আগামী অ্যাশেজে ক্রিকেটারদের ফিরে পাব। মাত্র এক মাস দূরে থাকা বাংলাদেশ সফরে যাওয়ার জন্যও দল পাবো।’ ক্রিকেটাররা চাইছে,  ১৯৯৭ সাল থেকে চলে আসা রাজস্ব বণ্টন নিয়মে ফিরে যেতে। কিন্তু বোর্ডের প্রস্তাবিত নতুন চুক্তিতে রাজস্বের একটা বড় অংশ দেয়া হবে শুধু আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলা শীর্ষ ২০ ক্রিকেটারদের।ঘরোয়া ও নারী ক্রিকেটারদের ভিন্ন মাত্রায় বেতন দেয়া হবে।

স্মিথ-ওয়ার্নাররা বোর্ডের এহেন প্রস্তাবে রাজি নয়। ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারদের সমান পরিমাণে রাজস্বে ভাগ থাকবে, এমন দাবী ক্রিকেটারদের। বোর্ড ও ক্রিকেটারদের মধ্যে এই ইস্যুতে সমঝোতা না হওয়ায় জুলাই ১২ তারিখ থেকে শুরু হতে যাওয়া অস্ট্রেলিয়া ‘এ’ দলের দক্ষিণ আফ্রিকা আফ্রিকা সফর বয়কট করেছে উসমান খাজার দল।ক্রিকেটারদের সাথে বোর্ডের চলামান ঝামেলার পরও মার্ক টেইলর ইতিবাচক চিন্তা করছেন। আশা করছেন খুব অল্প সময়ের মধ্যেই ক্রিকেটাররা মাঠে ফিরবেন।

ছবিঃ গুগল

 

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন amar@pranerbangla.com